Tags Posts tagged with "Bollywood"

Bollywood

লিখেছেন -
0 3318

কাজল বলিউড পা রেখেছিলেন বেখুদি ছবির মাধ্যমে | এই ছবিতে ওঁর বিপরীতে ছিলেন অভিনেতা কমল সাদনা | বক্স অফিসে এই ছবি সেইভাবে সফল হয়নি | কিন্তু কাজ্ল এবং কমল দুজনেরই অভিনয়ের প্রশংসা হয়েছিল | কমলকে এরপর দেখা যায় দিব্যা ভারতীর বিপরীতে রং ছবিতে | এই ছবি হিট হয় | এরপর বেশ কয়েকটা ছবিতে প্রধান নায়কের ভূমিকায় কমল কে দেখা যায় | কিন্তু সেইসব ছবি চলেনি | ৯ এর দশকের শেষে অভিনয় থেকে বিদায় নেন কমল | এরপর ২০০৬ সালে আবার উনি কামব্যাক করেন | এইবার ছোটপর্দার ধারাবাহিক কসম সে -তে প্রধান চরিত্রে দেখা যায় ওঁকে |

কমল হলেন স্বর্গীয় প্রযোজক এবং পরিচালক ব্রিজ সাদনার ছেলে | ১৯৯০ সালে ব্রিজ সাদনা খবরের শিরোনামে উঠে আসেন | ২১ অক্টোবার ১৯৯০ কমলের ২০তম জন্মদিনের দিন ব্রিজ সাদনা নিজের স্ত্রী এবং মেয়েকে খুন করেন | পরে নিজেও আত্মঘাতী হন |  ২৯ বছর আগে সেইদিন কমলের জীবন বদলে যায় |

কমল ওঁর বন্ধুদের সঙ্গে জন্মদিন উৎযাপন করছিলেন | এইসময় ওঁর বাবা মদ্যপ অবস্থায় প্রথমে ওঁর স্ত্রী সাইদা খান এবং তারপর মেয়ে নম্রতা কে গুলি করেন | কমলের গলাতেও গুলি লাগে | ওঁর এক বন্ধুও আহত হন | এরপর ওঁর বাবা নিজের ঘরে গিয়ে আত্মঘাতী হন |

পরে এই ব্যপারে কথা বলতে গিয়ে কমল বলেন সেই রাতে কী হয়েছিল সবাই আমার কাছে জানতে চায় | এখনো চোখের সামনে সব দেখতে পাই | মাঝেমাঝে মনে হয় সেইদিন ওঁদের সঙ্গে আমিও মারা গেলে ভাল হত | 

সেদিন আমার জন্মদিন ছিল | বাবা আর মায়ের সকালে একচোট ঝগড়া হয় | সন্ধ্যেবেলায় আমি বন্ধুদের সঙ্গে বেড়িয়ে যাই | মাঝরাতের একটু পরে আমি বন্ধুদের নিয়ে বাড়ি ফিরে আসি | আমরা ঘরে বসে গল্প করছিলাম | হঠাৎ গুলির আওয়াজ শুনে আমরা ঘর থেকে বেড়িয়ে আসি | আমার বন্ধু হ্যারি আর রিজভি আমাদের হাসপাতালে নিয়ে যায় | ততক্ষণে আমার মা‚ বোন আর বাবা মারা গেছে |

এর বেশ কিছু বছর বাদে কমল নিউ ইয়র্ক ফিল্ম অ্যাকাডেমি-র একটা ওয়ার্কশপে অংশগ্রহণ করেন | সেখানে উনি এই ঘটনার ওপর একটা সাত মিনিটের শর্ট ফিল্ম বানান | ওঁর শিক্ষকদের কাছ থেকে উনি এই ছবির জন্য প্রসংশিত হয়েছিলেন | প্রেম চোপড়া কে ওঁর বাবার চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছিল | 

বলিউডের বহু ছবিতে হিরোদের পাশাপাশি হিরোইনদেরও  ভয়ানক সব স্ট্যান্ট করতে দেখা যায় | তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এইসব বিপদজ্জনক স্টান্টে আসল নায়িকাদের বদলে বডি ডবল ব্যবহার করতে দেখা যায় | আর সেইসব মারাত্মক স্টান্টে করে থাকেন বি-টাউনের টপ স্টান্ট উওম্যানউওম্যান গীতা ট্যান্ডন | তবে গীতা কে এই জায়গায় পৌঁছাতে শুধুমাত্র কঠিন পরিশ্রমই নয় অনেক কিছু সহ্য করতে হয়েছে |

গীতার জন্ম গরিব পরিবারে | মাত্র পনেরো বছর বয়েসে গীতার বাবা ওঁর বিয়ে ঠিক করেন | পাত্র গীতার থেকে বয়েসে দশ বছরের বড় ছিল | গীতার বিয়েতে আপত্তি ছিল না কারণ উনি ভেবে ছিলেন বিয়ের পর অন্তত দুই বেলা পেট ভরে খেতে পারবেন | 

শ্বশুরবাড়িতে খাওয়া পরার অভাব না থাকলেও গীতার স্বামী নিয়মিত ওঁর ওপর মানসিক এবং শারীরিক অত্যচার করতো | বিয়ের রাতে স্ত্রীকে ধর্ষণ ও করে সে | শ্বশুরবাড়ির কেউ কোনদিনই গীতার পাশে দাঁড়ায়নি | উনিশ বছর বয়েসে এক ছেলে ও এর এক বছর পর এক মেয়ের জন্ম দেন গীতা |

বাচ্চাদের যখন এক ও দুই বছর বয়েস সেই সময় একদিন গীতার স্বামী ওঁর ওপর অকথ্য অত্যচার করে | আর সহ্য করতে না পেরে সন্তানদের নিয়ে গীতা বাড়ি থেকে পালিয়ে যান | গীতার কথায় আমি মাত্র দশম শ্রেণী অবধি পড়াশোনা করেছি | তার আগে কোনদিন অর্থ রোজগার করিনি | কী করে দুই সন্তান কে খাওয়াবো তাও জানতাম না | কিন্তু আমি আশা ছাড়িনি | এরপর বিভিন্ন ধরনের কাজ করেছেন উনি | এর মাঝেই একদিন ওঁর আলাপ হয় একটা ড্যান্স ট্রুপের সঙ্গে | বিভিন্ন বিয়ে বাড়িতে ভাংড়া নাচ করতো তারা | গীতাও সেই গ্রুপের একজন সদস্য হয়ে ওঠেন |

২০০৮ সালে গীতার একজন মহিলার সঙ্গে পরিচয় হয় | সে জানতে চায় গীতা স্টান্ট করতে ইচ্ছুক কীনা | গীতা পরে একটা সাক্ষাৎকারে বলেনআমি কোন কাজকেই কোনদিন মানা করিনি | শুধুমাত্র নিজের দেহ অন্য কাউকে কোনদিন বিক্রি করতে রাজি হইনি | আমি রাজি হয়ে গেলাম |

গীতার প্রথম স্টান্টে ওঁকে গায়ে আগুন লাগাতে হয় | এতে শরীরের বিভিন্ন অংশ পুড়ে যায় | কিন্তু  গীতা হার মানেন না, পুরুষদের পাশাপাশি উনি মারাত্মক সব স্ট্যান্ট ও অ্যাকশন দৃশ্য করে সবাইকে চমকে দিতেন  | গাড়ি চালানো শিখলেন এবং প্রশিক্ষণ ও নিলেন | অনেকবার গুরুতর আহত ও হয়েছেন |

গীতা এখন মাসে ৭ থেকে ১০ লাখ টাকা রোজগার করেন | মুম্বাইয়ের মালাড অঞ্চলে নিজের একটা ফ্ল্যাট ও কিনেছেন | করিনা কপূর হোক বা দীপিকা পাদুকোন বা আলিয়া ভট্ট এঁদের সবার বডি ডবল হিসেবে কাজ করেছেন গীতা | গীতার দুই ছেলে মেয়ে ওঁর সঙ্গেই থাকেন | ভবিষ্যতে মহিলাদের জন্য সেল্ফ ডিফেন্স শেখানোর একটা স্কুল করার পরিকল্পনা আছে ওঁর | 

লিখেছেন -
0 1091

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে ‘বদলা’ | এছাড়াও এই বছর মুক্তি পাবে ‘তড়কা’‚ ‘মিশন মঙ্গল’‚ ‘উইম্যানিয়া’ এবং তেলেগু ছবি ‘গেম ওভার’ | অভিনেত্রী তাপসী পান্নু বেশ ব্যস্ত অভিনয় জীবন নিয়ে | সফল নায়িকা হওয়া সত্ত্বেও তাপসী কিন্তু সিঙ্গল | উনি নিজের মুখেই জানিয়েছেন এই মুহুর্তে অভিনয় নিয়ে এতটাই ব্যস্ত উনি যে প্রেম করার সময় নেই | কিন্তু একই সঙ্গে উনি ওঁর প্রথম প্রেম ও ব্রেক আপের গল্পও শুনিয়েছেন |

একটা সাক্ষাৎকারে তাপসী জানিয়েছেন নবম শ্রেণীতে পড়ার সময় প্রথমবার প্রেমে পড়েন উনি | ওঁর বয়ফ্রেন্ড দশম শ্রীণীতে পড়তেন | কিন্তু বোর্ডের পরীক্ষার আগে তাপসীর সঙ্গে ব্রেক আপ করে দেন উনি | এরফলে নাকি তাপসী বেশ কয়েকদিন কান্নাকাটি করেছিলেন |

তাপসী বলেন আমার এখনো সবটা স্পষ্ট মনে আছে | সেইসময় মোবাইল ফোন ছিল না | আমাদের বাড়ির পিছনে একটা পি সি ও বুথ থেকে আমার বয়ফ্রেন্ড কে ফোন করতাম | একদিন সে আমার সঙ্গে ব্রেক আপ করে দিল | কারণ জ্যিগাসা করায় সে বললো বোর্ডের পরীক্ষা কাছে এসে গেছে তাই সে এইবার পড়াশোনায় মন দেবে | আমি খুব ভেঙে পড়েছিলাম | বেশ কয়েকদিন কান্নাকাটি করেছিলাম | এখন ঘটনাটা মনে করলে হাসি পায় |

একই সঙ্গে তাপসী জানান কোনদিন যদি উনি প্রেম করেন তাহলে প্রেমিকের পাশে থাকবেন এবং তাঁর স্বপ্ন কে বাস্তবে পরিণত করার চেষ্টা করবেন | পরিবর্তে উনিও একই জিনিস চান প্রেমিকের কাছ থেকে |

হোলি যেমন ধীরে ধীরে বলিউডের সিনেমার একটা অত্যন্ত জরুরী অংশ হয়ে উঠেছে তেমনি রিয়েল লাইফে তারকারাও রঙের উৎসব খুব বড় করেই পালন করেন প্রতি বছর | বি-টাউনের সব হুজ-হুরাই এই সব পার্টিতে উপস্থিত থাকার চেষ্টা করেন | আর এই বিশেষ দিনে সবাই একে অপরের প্রতি হিংসা বিদ্বেষ ভুলে ভালোবাসার রঙে ডুবে যান | তবে ধীরে ধীরে এই সব হোলি পার্টির জৌলুস কমে গেছে | আজকাল অনেক তারকাই আর রং খেলতে ভালোবাসেন না | আজকে রইলো বলিউডের কয়েকটা বিখ্যাত হোলি পার্টির কথা যা এখন অতীত হয়ে গেছে |

বি-টাউনে হোলি উদযাপন শুরু হয় দ্য আল্টিমেট শোম্যান রাজ কাপুরের হাত ধরে | প্রতি বছরই আর কে স্টুডিওতে উনি বন্ধু‚ সহকর্মীদের সঙ্গে হোলি খেলায় মেতে উঠতেন | এই পার্টিতে মোটামুটি সব বলি সেলিবরাই উপস্থিত থাকতেন | তবে একটা আশ্চর্যের ব্যাপার হলো রাজ কাপুর রিয়েল লাইফে হোলি উৎসবকে এতটা গুরুত্ব দিলেও ওঁর ছবিতে কিন্তু সেই ভাবে কোনদিন দেখানো হয় নি রঙের উৎসব |

বচ্চনরাও প্রতি বছর মহা ধূমধামের সঙ্গে হোলি উদযাপন করতেন | ২০০৪ এর বচ্চনদের হোলি পার্টি বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য কারণ এই পার্টিতে শাহরুখ খান ও রাজনীতিবিদ অমর সিংএর মধ্যে নতুন করে মৈত্রী স্থাপন হয় | একটা অ্যাওয়ার্ড সেরিমনিতে দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য ঘটেছিল | যাই হোক‚ বচ্চনদের বাড়িতে হোলি উদযাপন করা বন্ধ হয়ে যায় অমিতাভ বচ্চনের মা তেজি বচ্চনের মৃত্যুর পর |

শাহরুখ খান ও গৌরীও প্রতিবছর মন্নতে হোলি পার্টির ব্যবস্থা করতেন | কিন্তু ২০১১ সালে ভাং আর জলের ব্যবহার বন্ধ করে দেন ওঁরা | সেই বছর সব অতিথিদের বেলফুলের মালা দিয়ে স্বাগত জানিয়েছিলেন ওঁরা | এর পরের বছর থেকে এখন অবধি আর কোনো হোলি পার্টির ব্যবস্থা করেননি খান দম্পতি |

ফিল্মমেকার সুভাষ ঘাইও গোটা ইন্ডাস্ট্রিকে নিয়ে হোলি উদযাপন করতেন ওঁর মাড আইল্যান্ডের বাংলোতে | তবে উনিও বহুদিন হলো এটা বন্ধ করে দিয়েছেন | গতবছর ১৯৯৫-এর হোলি পার্টির কয়েকটা ছবি যেখানে শাহরুখ ও গৌরীকে রং খেলতে দেখা যাচ্ছে তা আবার নতুন করে দেখা যায় এবং তা সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়ে যায় |

শাবানা আজমি এবং জাভেদ আখতার এখনো রঙের উৎসব পালন করেন শাবানার বাবার জুহুর বাড়িতে | ৪০ বছর আগে প্রথম শাবানার বাবা বিখ্যাত কবি এবং গীতিকার কাইফি আজমি এই উৎসবের সূত্রপাত করেন |

এছাড়াও একতা কাপুর প্রতি বছর ছোটপর্দার তারকাদের জন্য হোলি পার্টির ব্যবস্থা করেন |

রণবীর কপূরের সঙ্গে ‘বলম পিচকারি’ গানে জমিয়ে হোলি খেললেও নিজের স্বামী রণবীর সিং-এর সঙ্গে কোনদিন প্রকাশ্যে হোলি খেলতে দেখা যায়নি দীপিকাকে। কিন্তু এখন তাঁরা স্বামী-স্ত্রী। বিয়ের পর এই বছর প্রথম হোলি তাঁদের। কী প্ল্যান দীপিকার?

খুব স্বাভাবিকভাবেই সবার ধারণা এই দিন স্বামী এবং বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গেই তিনি মেতে উঠবেন রঙের খেলায়… হয়তো বা পার্টির থিম সং হবে তাঁরই ছবির গান ‘বলম পিচকারি’। এই ধরনের কিছু সত্যি ভেবে থাকলে সেই আশায় জল ঢেলে দিয়েছেন স্বয়ং দীপিকা। হোলি কেমন কাটাবেন জিজ্ঞাসা করায় তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন,বিয়ের প্রথম হোলি হলেও রণবীরের সঙ্গে কাটাতে পারবেন না তিনি। কারণ সেই দিন পরবর্তী ছবির শুটিং-এ ব্যস্ত থাকবেন অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত,মেঘনা গুলজার পরিচালিত নতুন ছবি ‘ছপক’-এ দেখা যাবে দীপিকাকে। যেখানে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী অগরওয়ালের চরিত্রে অভিনয় করবেন অভিনেত্রী। তাঁর জীবনী ও সংগ্রামের গল্প তুলে ধরবেন এই পরিচালক-অভিনেত্রী জুটি। ২৫ মার্চ থেকে শুরু হবে তার শ্যুটিং। এবং এরই জন্যে হোলির দিন তিনি পাড়ি দেবেন দিল্লি।

মাত্র দু বছর বয়সেই স্টার হয়ে গিয়েছে তৈমুর। এই খুদের এক একটা পদক্ষেপের নজর রাখেন পাপারাৎজিরা। জন্মানোর পর থেকে যত ছবি সইফ আলি খান ও করিনার কাছে রয়েছে,তার থেকে অনেক বেশি ছবি রয়েছে পাপারাৎজিদের কাছে। তাই কখন সে মোটা হচ্ছে কখন রোগা কখন চুল বড় হচ্ছে কখন ছোট এই সবকিছুর প্রতি নজর রয়েছে সকলের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় রয়েছে তৈমুরের হাজারও ফ্যান পেজ। ফলে নেটিজেনদের নজরে রয়েছেন চব্বিশ ঘন্টা। তাই তাদের দাবি করিনার যত্নের অভাবে অভুক্ত রয়ে যেতে পারে তৈমুর। মা-এর সামনে আবার এই মন্তব্য তুলে ধরেছেন আরবাজ খান। সম্প্রতি একটি টক শোতে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের বলা নানা মন্তব্য পড়ে শোনানো এই শো-এর একটি বিশেষ চমক। আর সেই শোতে করিনার উপস্থিতিতেও এমনটা হতে দেখা গেল। যেখানে করিনার বয়স, বিকিনি পরা থেকে শুরু করে তৈমুরের যত্ন নেওয়ার বিষয় নানা কুরুচিকর মন্তব্য পড়ে শোনান আরবাজ। তবে চুপ করে থাকার মেয়ে বেবো নন। তাই এইধরনের কথার মোক্ষম জবাব দিলেন তিনি। নেটিজেনদের উদ্দেশ্যে বললেন,’আপনাদের বেচারা তৈমুর মোটেই বেচারা নয়। আর ও খালি আমাদের নয়,চব্বিশ ঘন্টা কারওর না কারওর যত্নে থাকে। আর রোগা??? তৈমুর এখন আগের থেকে তুলনামূলক বেশি খায়। মোটাও লাগে এখন ছবিতে।’

এছাড়াও ছেলের অতিরিক্ত লাইমলাইটে আসা নিয়ে মুখ খোলেন অভিনেত্রী। তিনি বলেন,’এখন আমরা তৈমুরকে নিয়ে বাইরে গেলে সবাই আমাদের ডাকার বদলে তৈমুরকে ডাকতে থাকে। আমি যেমন একদিকে ভাবি যে তারকা সন্তান হিসেবে আগে থেকে জীবনযাপনে অভ্যস্ত হয়ে যাওয়া উচিত। আবার কিছু সময় মনে হয়,এত তাড়াতাড়ি এতটা লাইমলাইটে আসার প্রয়োজন ছিল না।’

বি-টাউনে অভিনেতা অভিনেত্রীদের বন্ধুত্বের সম্পর্ক কখনও খুব গভীর আবার কখনও খুব ঠুনকো। কম্পিটিশনের যুগে একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী এরা সকলেই। তেমনই নতুন প্রজন্মের তারকাদের মধ্যে একে অপরের বেস্ট ফ্রেন্ড হলেন ক্যাটরিনা-আলিয়া। সেই সূত্রে আলিয়ার এক আদুরে নাম রেখেছেন ক্যাট। কী জানেন? 

সম্প্রতি আলিয়া ভট্টের আসন্ন ছবি ‘কলঙ্ক’-এর প্রচারে ব্যস্ত অভিনেত্রী। মুক্তি পেয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যে টিজার এবং একটি গান। যেখানে মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে একসঙ্গে সিন শেয়ার করছেন আলিয়া। মাধুরীর মত অনবদ্য নৃত্যশিল্পীর পাশে এক্কেবারে যে নিজেকে মানাশই করে নিয়েছেন আলিয়া তা দর্শকদের প্রতিক্রিয়ায় স্পষ্ট। তবে শুধু দর্শক বা অনুরাগীরা নন,তারকারাও আলিয়ার প্রশংসায় আপাতত পঞ্চমুখ। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই গানের ভিডিওটি শেয়ার করা মাত্র একে একে বহু তারকা তাঁদের প্রতিক্রিয়া জানাতে থাকেন। সেখানে হাজির হন প্রিয় বন্ধু ক্যাটরিনাও। বন্ধুর আদরের যে নাম তিনি রেখেছেন সেই নামেই সম্বোধন করে আলিয়াকে বাহবা দিলেন ক্যাট। সোশ্যাল মিডিয়াইয় সবার সামনে আলিয়ার নাম ছোট করে ‘আলু’ বলে ফেললেন অভিনেত্রী। দেখে নিন সেই পোস্টটি। 

দুজনে ভাল বন্ধু হলেও আলিয়া এখন যাঁকে ডেট করছেন অর্থাৎ রণবীর কপূর,একসময় উনি ডেট করেছিলেন ক্যাটরিনা কইফকে। রণবীর-আলিয়ার সম্পর্কের কথা এখন সকলের সামনে পরিষ্কার। তাই এ প্রসঙ্গে ক্যাটরিনা ও আলিয়া দু’জনকে প্রশ্ন করায় তাঁরা জানান, ‘ এতে আমাদের বন্ধুত্বের কোন পরিবর্তন হবে না।’ 

বি-টাউনে তারকাদের সঙ্গে শুধু তাঁদের বাবা মা,বন্ধু ও প্রিয়জনই যুক্ত থাকেন না। তাঁদের জীবনে একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে মেকাপ আর্টিস্ট,হেয়ার স্টাইলিশ,হেল্পার,ড্রাইভার ও বডিগার্ড। এদের ছাড়া তারকারা এক পা চলতে পারেন না। আর সেই কারণে তাদের প্রতি একটি আলাদা ভালবাসা রয়েছে আলিয়ার। তাই জন্মদিনে তাদের দিলেন এক অভিনব রিটার্ন গিফট।

জানা যাচ্ছে, নিজের ২৬ বছরের জন্মদিন সেলিব্রেট করার আগে তাদের বিশেষ উপহার দিয়েছেন ভট্ট কন্যা। তাদের দুজনকেই মুম্বই-এ বাড়ি কেনার জন্য ৫০ লক্ষ করে ১ কোটি টাকার চেক দিয়েছেন আলিয়া। এই টাকা দিয়ে গাড়ি চালক সুনীল ও হেল্পার অমল দুজনেই মুম্বই-র জুহু গলি ও খার দান্ডা এলাকায়  এক কামরার একটি করে ফ্ল্যাট বুক করে ফেলেছেন।

খবর অনুযায়ী,আলিয়ার বলিউডে ডেব্যুর সময় থেকে অর্থাৎ তাঁর প্রথম ছবি ‘স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার’-এর সময় থেকে সুনীল ও অমল রয়েছেন আলিয়ার সঙ্গে। আলিয়ার কথায়,’এরা না থাকলে আমি অন্ধ। আমি কিচ্ছু করতে পারবো না। প্রথম ছবি থেকে আজ অবধি একভাবে ছায়ার মত রয়েছে তারা।

প্রসঙ্গত,খুব শিগগিরি বড়পর্দায় ‘কলঙ্ক’ নিয়ে আসছেন আলিয়া ভট্ট। করণ জোহর প্রযোজিত ও অভিষেক বর্মন পরিচালিত এই ছবির টিজার মুক্তি পেয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যে। এছাড়াও এই ছবির নতুন একটি গানে অন্যবদ্য পারফরমেন্সে দর্শকদের মন জয় করে ফেলেছেন আলিয়া। এখন শুধু পর্দায় ছবিটি দেখার অপেক্ষা।

বরাবর বলিউড অভিনেতা কার্তিক আরিয়নকে পছন্দ সারার। এমনকি সৎ মা করিনার অনুমতিও পেয়ে গিয়েছেন তিনি। কিছুদিন আগে একসঙ্গে চুম্বন এবং এখন দিল্লির রাস্তায় বাইকে দিব্বি ঘুরছেন তাঁর সঙ্গে। কিন্তু এইসব রোম্যান্টিক বিষয়কে পাশে ঠেলে সমালোচনার ঝড় তুললেন নেটিজেনরা।

না , কার্তিকের সঙ্গে জুটি বাঁধায় কোন আপত্তি করছেন না নেটিজেনরা। তার বদলে হেলমেট ছাড়া ঘুরছেন বলে নিন্দায় ভরে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায় বাইক রাইডের ভিডিও। আর শুরু হয় একাংশের সমালোচনা। কেন হেলমেট পরেননি বলে কেউ প্রশ্ন তোলেন,আবার কেউ হেলমেট পরে বাইকে ওঠার পরামর্শ দিচ্ছেন সারাকে। দেখে নেওয়া যাক ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওটি।

অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের উৎপাত ও তার প্রতিক্রিয়া একজন সেলেবকে কতটা আঘাত করে জানতে চাওয়ায় সারা জানান,’সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে সবকিছু দেখতে শুনতে বুঝতে পারা খুব সোজা। সেলেব মানেই পাবলিক ফিগার। তাই একজনের যদি আমার কোন লুক পছন্দ হয় আর একজনের নাও হতে পারে। তাই এসব বিষয়কে খুব একটা গুরুত্ব দেওয়া উচিত নয় বলে আমি মনে করি।’

এর আগে অবশ্য কার্তিক-সারার চুম্বন দৃশ্য ভাইরাল হয়েছিল নেট দুনিয়ায়। জানা গিয়েছে চর্চিত এই জুটি একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করছেন পরিচালক ইমতিয়াজ আলির নতুন ছবি ‘লাভ আজ কাল-২’তে। আর সেই ছবির শুটিং-এ আপাতত ব্যস্ত সারা ও কার্তিক। সম্প্রতি চুম্বন দৃশ্যের প্রসঙ্গে কার্তিককে জিজ্ঞাসা করায় তিনি জানান,’আমরা আপাতত নতুন ছবির শুটিং-এ ব্যস্ত। তাই বেশিকিছু এখন বলতে পারবো না।’ তবে যে চুম্বন দৃশ্যে সারার সঙ্গে কার্তিককে দেখা গিয়েছে তাতে আদপে তিনি ছিলেন কী না সেই নিয়ে মিডিয়ার দিকে পাল্টা প্রশ্ন তুলে খতিয়ে দেখতে বলেন অভিনেতা।

বলিউডে কোন তারকাদের ঘরে জন্ম হয়নি তাঁর। সৌন্দর্য যে শুধু রঙ দেখে হয় না,তাও প্রমাণ করেছেন এই অভিনেত্রী। স্টাইল,ফ্যাশন,অভিনয় আপাতত বড়পর্দার পাশাপাশি ডিজিটাল জগতেও ছেয়ে রয়েছেন তিনি। হ্যাঁ কথা হচ্ছে অন্যতম প্রতিভাবান ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাধিকা আপ্তের। আলিয়া, দীপিকা, ক্যাটরিনার যুগে যেন আলাদাই গ্ল্যামর বহন করেন তিনি। কাজ করেছেন নামী অভিনেতাদের সঙ্গে। তবে এই সাফল্যে কী প্রতিক্রিয়া অভিনেত্রীর?

সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে এসে রাধিকা জানান,’আমি প্রথম সারির তারকাদের সঙ্গে কাজ করতে চাই। আমার কাছে সাফল্যের সংজ্ঞা আলাদা। ফলে আমি নিজেকে এখনো সফল মনে করি না। কারণ আমি যা অর্জন করতে চেয়েছিলাম, তা এখনও পেয়েছি বলে মনে হয় না।’

বলিউডের পাশাপাশি হলিউডেও পা রেখেছেন রাধিকা। সম্প্রতি ব্রিটিশ-আমেরিকান ছবি ‘দ্য ওয়েডিং গেস্ট’ মুক্তি পেয়েছে আমেরিকায়। যেখানে অভিনেত্রীর সঙ্গে কাজ করেছেন হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা তথা ‘স্লামডগ মিলিয়ানিয়র’ খ্যাত দেব পটেল। আর একদিকে নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকির সঙ্গে কাজ করছেন ‘রাত অকেলি হ্যা’ ছবিতে। বলিউডের অন্যতম সেরা অভিনেতা নওয়াজের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা জানতে চাওয়ায় রাধিকা জানান,’নওয়াজের সঙ্গে কাজ সব সময় উপভোগ করি। অসাধারণ অভিনেতা। ফলে কিছু ভাল সিন করতে পারব বলে মনে হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, ৩২ বছরের  রাধিকা আপ্তে ২০০৫ সালে শুরু করেছিলেন বলিউড যাত্রা। শাহিদ কপূর অভিনীত ‘ওয়াহ লাইফ হো তো অ্যাইসি’ ছবির মাধ্যমে ডেব্যু করেন অভিনেত্রী। এরপর থেকে ‘বদলাপুর’,’পার্চড’,’ফোবিয়া’,’প্যাডম্যান’ সহ আরও বহু ছবিতে নিজেকে সেরা অভিনেত্রী হিসেবে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছেন রাধিকা।

রেসিপি

error: Content is protected !!