কিশলয়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

দ্য গ্রেট ম্যাজিশিয়ান (ছোটদের গল্প)

সেদিন ট্রেনের কামরা মোটামুটি ফাঁকা। একটি ছেলে উঠল, যাকে আগে কখনও দেখেননি মিঃ মল্লিক। সে ঝোলা থেকে একটি দড়ি বার করে সেটা দিয়ে নানা রকম ম্যাজিক দেখাল। ছোট্ট একহাত একটা দড়িকে হাতের ওপর সোজা রেখে কখনও বাঁকিয়ে কখনও নাচিয়ে তাক লাগিয়ে দিল। তারপর?

Read More »

জোছনা হাওয়া (কবিতা)

দম ফাটান হাসির গুঁতোয়
ছিঁড়ল ফিতে নতুন জুতোয়,
পড়ল যে টান ঘুড়ির সুতোয়
হাসতে গিয়ে  পাগল হলাম।

Read More »
Dragon

জেরেনিমো আর ড্র্যাগন

জেরেনিমো স্টিলটন হল বিখ্যাত সাংবাদিক। আসলে ইঁদুর হলেও তার খুব সাহস। অ্যাডভেঞ্চারে যায়। এটাও তার একটা অ্যাডভেঞ্চারের গল্প।

Read More »
KIds

লেখা লেখা খেলা

ছোটদের জন্য নিজের জাদু কলমের কালি দিয়ে লেখালিখির ছড়া লিখে ফেললেন পারমিতা দাশগুপ্ত…

Read More »

আমাদের ছাদের বাগান আর পাখিরা

বড় হয়ে আমি একটা মস্ত বড় বাগানের মধ্যে একটা ছোট্ট বাড়িতে থাকব। বাগানে একটা দোলনা থাকবে, আমি সারাদিন বসে দুলব। আমার চারপাশে পাখি কাঠবিড়ালি প্রজাপতিরা সব নিজেদের মধ্যে খেলা করবে।

Read More »

লকডাউনের ছড়া (শেষ পর্ব)

কবে থেকে ভাবছি ,কবে রেজাল্ট পাব?
স্কুল যাবে না স্কুল যাবে না, গোল্লা খাব।
অনলাইনে রেজাল্ট ? সেটাও কবে?
আদর দিয়ে বাঁদর, এটাও দেখতে হবে!…

Read More »
Illustration by Upal Sengupta

লকডাউনের ছড়া

লকডাউনের এই বাজারে,
এই তো সময়
দেওয়াল জুড়ে অন্ধকারে
কাটাকুটি, ছায়াবাজি
রূপকথা আর জলপরীদের
আঁকিবুকি স্বপ্নে বাজি। …..

Read More »
painting by Baishakh Bhattacharya

পুটাইবাবু বীর (ছড়া)

মাথায় নিয়ে গাছলা মুকুট! হলদে ফ্রেমে লাল ফুটফুট মানিয়েছে জোরদার! বীরের সাজে পুটাইবাবু খোলা তলোয়ার! লাল গামবুট পায়ের ‘পরে মুকুট

Read More »
Iron man by Boisakh

আয়রন ম্যান ও ভয়াল ভাইরাস

হঠাৎ করে চায়ের দোকানে আয়রন ম্যানকে দেখে সবাই চমকে চোদ্দো! ট্যাঁপা তো চায়ের ভাঁড় উল্টে ফেলে নিজের বারমুডাটাই ভিজিয়ে ফেলল! দত্তবাড়ির বুড়োদাদু আস্তে করে আয়রন ম্যানকে জিজ্ঞেস করলেন, “ও বাবা টোনি, এই অসময়ে তুই আবার কশটিউম পরে চায়ের দোকানে উড়ে এলি কেন? কিচু হইয়েচে নাকি?” আয়রন ম্যান রেগে মেগে বলল, “বলি আক্কেলবুদ্ধি কি সব আলমারিতে তালা দিয়ে রেখে বেরিয়েছ? সবাইকে বার বার টিভিতে-রেডিয়োতে-কাগজে-ফেসবুকে বারণ করা হচ্ছে অকারণে ঘর থেকে বেরতে!

Read More »
painting by Yajnaseni যাজ্ঞসেনী

আমাদের আঁকার স্কুল

দিদু আমার আঁকার খাতা দেখতে খুব ভালোবাসত। প্রতি শনিবার আমি আঁকার ক্লাস থেকে ফিরে দিদুকে দেখাতাম সেদিনের আঁকা। আমার জলরং দিয়ে ছবি আঁকতে ভালো লাগে। গ্রামের ছবি, গাছপালার ছবি আঁকতে ভালো লাগে। কিন্তু ফিগার আমি ভালো আঁকতে পারি না। তাই আঁকতেও চাই না। স্যর বলেন ফাঁকিবাজ। দিদুও খুব ভালো ছবি আঁকত। আমাদের বাড়িতে দিদুর আঁকা ফ্রেম করে দেওয়ালে টাঙানো আছে। কিন্তু এখন আর পারত না। বলত আমার হাত কাঁপে।

Read More »
ছবি উপল সেনগুপ্ত

হাওয়ার হদিশ

উত্তরে বয় যে হাওয়া,

অনায়াসে যায় তা খাওয়া – 

হাত গুনে বলছে যতো গণৎকার;

সরলে একটু পূবে – 

স্বাদ তার যায় যে উবে, 

অথচ গন্ধটা রয় চমৎকার।

Read More »