Tags Posts tagged with "Meetoo"

Meetoo

সম্প্রতি #MeeToo ঝড়ে জড়িয়ে পরেন রাজকুমার হিরানি। ‘সঞ্জু’ ছবির পোস্ট প্রোডাকশন চলাকালীন তাঁর ক্রিউ-এর একজন মহিলাকে টানা ৬ মাস ধরে যৌন হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। আর তারপর থেকেই শোরগোল পরে যায় বি-টাউনে। 

View this post on Instagram

Enroute Delhi @hirani.rajkumar

A post shared by Atul Agnihotri (@atulreellife) on

ঘটনাটি আদালতের বিচারাধীন হওয়ায় আপাতত বলিউডে কাজ করার অনুমতি নেই তাঁর। তাই বেশ কয়েকদিন ঘরবন্দি থাকতে দেখা যায় তাঁকে। তবে অবশেষে সকলের কাছে দেখা দিলেন বলিউডের অন্যতম এই পরিচালক। সম্প্রতি ‘ভারত’ ছবির সহ পরিচালক তথা সলমন খানের ভগ্নিপতি অতুল অগ্নিহোত্রীর সঙ্গে লক্ষ করা যায় রাজকুমার হিরানিকে। অতুল নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে রাজুর সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেন। ক্যাপশনে লেখা থাকে ‘দিল্লির পথে’। তবে দিল্লির পথে যাওয়ার কারণ আপাতত জানা যায়নি । 

রাজু  হিরানির প্রতিবেশীদের কাছ থেকে কিছুদিন আগে অবধিও কানাঘুষো শোনা যাচ্ছিল যে তিনি বেশ অনেকদিন ধরেই নিজেকে গৃহবন্দী করে রেখেছেন। এমনকি মর্নিংওয়াকেও যেতেন না উনি। শোনা যাচ্ছে আগের থেকে অনেকটা রোগাও হয়ে গিয়েছেন তিনি। তবে এই সব জল্পনার পর, রাজু হিরানিকে দেখে খানিকটা হলেও স্বস্তি পেল ওঁর অনুরাগীরা। #MeeToo অভিযোগ  ওঠার পর অনেক সহকর্মীই পাশে থেকেছেন তাঁর।  

 

বলিউডের পাশাপাশি #MeeToo এবার টলিউডেও। অভিযোগ ‘রসগোল্লা’-ছবির পরিচালক পাভেলের বিরুদ্ধে। এবং সেই খবরটি আপাতত ছড়িয়ে পরেছে গোটা টলি পাড়া জুড়ে।

সম্প্রতি অভিনেত্রী অনুপমা চক্রবর্তী একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে পাভেলের বিরুদ্ধে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ আনেন। সেই পোস্ট অনুযায়ী,বেশ কয়েকবছর আগে অডিশনের সূত্রে আলাপ হয় পাভেলের সঙ্গে, রসগোল্লা ছবির জন্য অভিনেতা অভিনেত্রীর খোঁজ চলছে তখন। সেই সময়ই তাঁকে, অনুরূপাকে পছন্দ হয় পাভেলের। এরপর প্রায়ই চিত্রনাট্য নিয়ে বসতেন তাঁরা, পাভেলের নাকতলার বাড়িতেও যেতেন অভিনেত্রী। তিনি লিখছেন, “আমি তখন হতাশায় ভুগছি, তেল মাখা চুল,কুর্তি আর মেকআপ ছাড়াই পৌঁছে যাই ওঁর  বাড়িতে। সেখানেই যৌন হেনস্থার শিকার হতে হয়। ওর আচরণে স্পষ্টই বোঝা গিয়েছিল আমাকে গরীব ঘরের মেয়ে মনে করেছিল পাভেল।” অভিনেত্রী আরও লেখেন ‘একদিন হঠাৎই পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে আমায় চুমু খেতে শুরু করে, আমি কোনওক্রমে নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে পালিয়ে আসি সেখান থেকে।”

তবে এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন পাভেল। তাঁর দাবি ২০১৬ সালে এইধরনের কোন ঘটনা ঘটে থাকলে আজকে এতদিন পর সেই কথা কেন বলছেন অভিনেত্রী। এদিকে অভিনেত্রীর কথায় নিজেকে টলিউডে কিছুটা প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছিলেন আগে। নাহলে তাঁর কোন কথারই গুরুত্ব দেওয়া হত না বলে জানান অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি বিরসা দাশগুপ্তর ছবি’ ক্রিসক্রস’-এ অভিনয় করেছেন অনুপমা চক্রবর্তী। এছাড়াও জি ফাইভের ‘কালী’ সহ আড্ডা টাইমস-এর সিরিজ ‘ইন দেয়ার লাইফ’-এ দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। অন্যদিকে ‘বাবার নাম গান্ধীজি’ ছবি দিয়ে টলিউডে পা রাখলেও ‘রসগোল্লা’ ছবি পরিচালনার পরই জনপ্রিয় হন পাভেল।

#MeeToo নিয়ে বলিউডে প্রথম  আওয়াজ তুলেছিলেন  অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। অভিযোগ তুলেছিলেন বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা তথা সম্মানীয় ব্যক্তি নানা পটেকরের বিরুদ্ধে। ২০০৮ সালে একটি ছবির শুটিং চলাকালীন অভিনেতা নানা পটেকর তাঁকে হেনস্থা করেছিলেন বলে অভিযোগ তুলেছিলেন তনুশ্রী। আর তারপর থেকেই বলিউড জুড়ে ছেয়ে যায় #MeeTooর ঝড়। এই অভিনেত্রীর সাহসকে সম্মান জানিয়ে এবং তাঁর সাহসিকতার হাত ধরে বহু এমন না জানা সত্যি বেরিয়ে এসেছে। পাশে যেমন দাঁড়িয়েছেন বহু তারকা,বিরোধিতা করতেও বাকি রাখেননি অনেকে। কিন্তু তনুশ্রীর এই সাহসিকতাকে কুর্নিস জানিয়েছে এবার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়। 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলে এবার #MeeToo নিয়ে বক্তৃতার ডাক পেলেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে নিজেই সে খবর জানালেন অনুরাগীদের। পড়ুয়াদের উদ্যোগে প্রতিবছরই হার্ভাডে ইন্ডিয়া কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়। আর এই বছর সেই স্থানে বিশেষভাবে নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তনুশী দত্তকে। তবে তিনি শুধু একাই নন,সঙ্গে থাকবেন চিত্র পরিচালক এস এস রাজামৌলি,সমাজকর্মী অরুণা রায় সহ বরখা দত্ত এবং আজাউদ্দিন ওয়েসি। 

সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম ওয়ালে নিজের সেই খবর শেয়ার করন অভিনেত্রী। তিনি জানান,আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি বস্টনের হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলে ‘ইন্ডিয়া কনফারেন্স-২০১৯’ রয়েছে। স্নাতকস্তরের পড়ুয়ারা ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। তাদের কাছ থেকেই এই বছর আমন্ত্রণ পেয়েছি আমি। হার্ভার্ড বিজনেস স্কুল ও হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলে বক্তৃতা করব। বলিউডে #MeeToo আন্দোলন এখনও জারি। তবে তনুশ্রী ফিরে গিয়েছেন আমেরিকায়।  অভিনয়ে আর ফেরার ইচ্ছা নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। 

২০১৮ সালে যেমন একদিকে বলিউডে ঘটেছে বিপ্লব,নতুন প্রজন্মের প্রতিভায় আবারও জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠেছে ইন্ডাস্ট্রি,তেমনই অন্যদিকে #MeeToo অভিযোগে উত্তাল হয়েছে গোটা বি-টাউন। ২০১৮ সাল থেকেই বলি সেলেবদের উপর  আছড়ে পড়েছে এই ঝড়। নাম জড়িয়েছে বহু তারকার। সম্প্রতি সেই তালিকায় আরও একটি নাম যুক্ত হয়েছে পরিচালক রাজকুমার হিরানির। ‘সঞ্জু’ ছবির পোস্ট  প্রডাকশন চলাকালীন এক কর্মচারীকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ আসে তাঁর বিরুদ্ধে। যদিও এই পরিচালকের সঙ্গে কাজ করে আসা বহু সেলেবরা পাশে দাঁড়িয়েছেন তাঁর। সর্বসমক্ষে তাঁর স্বভাব চরিত্র নিয়ে প্রশংসাও করেছেন অনেকে। তবে এবার রাজকুমার হিরানির সম্পর্কে মুখ খুললেন বলি অভিনেত্রী সোনম কপূর।

সম্প্রতি সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া একটি সাক্ষাত্‍কারে সোনম কপূর বলেন,”আমি আন্দোলনের বিরোধী নই বরং বরাবরই পক্ষে থেকেছি, কিন্তু এই বিচার ব্যবস্থাকে আরও সংবেদনশীল হতে হবে। আমি রাজু হিরানিকে বহু বছর ধরে চিনি, এবং জানি তাঁর মত মানুষ এই ইন্ডাস্ট্রিতে খুব কম রয়েছেন।” অভিনেত্রীর বক্তব্যে তিনি সাফ জানিয়ে দেন,যে কোন প্রকার সমস্যায় অবশ্যই প্রতিবাদ করা উচিত কিন্তু সত্যকে বিকৃত করে নয়। সোনম আরও বলেন “আমি সব সময় চাই একজন মহিলাকে বিশ্বাস করতে কিন্তু ভেবে দেখুন কোনও কারণে যদি ঘটনায় ওই মহিলা সত্যি কথা না বলে থাকেন তাহলে সেটা আন্দোলনের পক্ষে কতটা ক্ষতিকর হতে পারে বিশেষ করে যেখানে রাজু হিরানির মত একজন মানুষের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে সে ক্ষেত্রে।  সত্যি মিথ্যার বিচার আদালত করবে কিন্তু এতে যদি রাজু দোষী না হন, তাহলে এরপর থেকে লোকে কোন মহিলার পাশে দাঁড়াতে দুবার ভাবতে বাদ্ধ হবে।”

শুধু এই অভিনেত্রীই নন, বলিউডের এই জনপ্রিয় পরিচালক রাজকুমার হিরানির পাশে দাঁড়িয়েছেন আরশদ ওয়ারসি, শর্মান যোশি, বনি কপূর ও জাবেদ অখতর সহ অনেক তারকাই। তবে এখনও পর্যন্ত মুখ খোলেননি পরিচালক নিজে। আপাতত পরিস্থিতি থিতু না হলে পরের প্রজেক্টের কাজও শুরু করতে পারবেন না পরিচালক। এমনকি বিধু বিনোদ চোপড়া যার প্রোডাকশনে তিনি এতদিন পরিচালনা করছিলেন সেই প্রযোজকও বিচার না হওয়া অবধি রাজুর সঙ্গে কাজ করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন।

সম্প্রতি #MeeToo নিয়ে জর্জরিত তিনি। বলিউডে বহুকালীন সম্মান ও নাম আচমকাই দমকা হাওয়ার মত পাল্টে যায় নানা পাঠেকরের জীবনে। কিন্তু সেই ধাক্কা সম্পূর্ণ সামলে ওঠার আগেই এই বর্ষীয়ান অভিনেতার জীবনে ফের নেমে আসে শোকের ছায়া।

গত মঙ্গলবার রাতে মুম্বই-এ মৃত্যু ঘটে নানা পাটেকরের মা নির্মলা পাটেকরের। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৯ বছর। জানা যাচ্ছে, বেশ কিছুদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন নানা পাটেকরের মা। ফলে অভিনেতা এবং তাঁর পরিবার মুম্বইয়ের মুরাদেই তাঁর মায়ের কাছে থাকতে শুরু করেন। কিন্তু, আচমকাই নির্মলা পাটেকরের মৃত্যু ঘটে।এমনকি  মায়ের মৃত্যুর সময় নাকি বাড়িতে ছিলেন না অভিনেতা। মুম্বই-এর ওশিয়াড়ায় নির্মলা পাটেকরের শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় বলেই জানা যায়।

প্রসঙ্গত, ২০০৭ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’-এর সেটে অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তকে যৌন হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ আসে নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে। ফলে অভিযোগের ভিত্তিতে এই মুহূর্তে বলিউডের বেশ কিছু প্রজেক্ট থেকে বেরিয়ে এসেছেন বলিউডের এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। যার মধ্যে অক্ষয় কুমারের ‘হাউজফুল ৪’ অন্যতম। তবে ‘#MeeToo’-র ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই আদালতে ছোটাছুটি করছেন বলিউডের এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। তবে বিষয়টি নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুলতে একেবারেই নারাজ তিনি।

সম্প্রতি #MeeToo জালে জড়িয়েছেন বলিউডের অন্যতম পরিচালক রাজকুমার হিরানি। ‘সঞ্জু’ ছবির পোস্ট প্রোডাকশন চলাকালীন ৬ মাস ধরে নাকি নিগৃহীতাকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন পরিচালক। ইতিমধ্যে কোর্টে মামলা দায়ের করা হয়ে গিয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। আর সেই অভিযোগ গায়ে লাগার পর থেকেই বলিউডে পড়ে গিয়েছে শোরগোল।  

এমন কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রী নেই যাঁরা কাজ করতে চান না এই পরিচালকের সঙ্গে। আর সেই পরিচালকের বিরুদ্ধেই এই ধরনের অভিযোগ আসায় পাশে দাঁড়িয়েছেন অনেকেই। কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় আবার কেউ সর্বসমক্ষে জাহির করেছেন ভালবাসা ও শ্রদ্ধা। আর সম্প্রতি এমনই একটি টুইট করেছেন লেখক জাভেদ আখতর।

টুইটটিতে তিনি লেখেন “আমি ১৯৬৫ সাল থেকে বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছি। এরপর থেকে আজ অবধি কেউ যদি আমাকে কখনও বলে ইন্ডাস্ট্রির সবথেকে ভদ্র মানুষ কে,আমার মাথায় সবার আগে পরিচালক রাজকুমার হিরানির নামই আসবে।”

শুধু ইনিই নন, এর আগে তাঁর ছবিতে কাজ করা প্রায় প্রত্যেক তারকাই পাশে দাড়িয়েছেন পরিচালকের। দিয়া মির্জা থেকে শুরু করে শর্মন জোশী প্রত্যেকেই তাঁর ভদ্রতা ও নম্রতার কথা তুলে আনছেন বারবার। তবে এই অভিযোগ কতটা সত্যি তা জানতেও ততটা আগ্রহী এই মুহূর্তে সকলেই।

বলিউডের একজন অভিজ্ঞ এবং অন্যতম পরিচালক রাজকুমার ওরফে রাজু হিরানি। এমন কোন অভিনেতা বা অভিনেত্রী নেই যিনি এই পরিচালকের সঙ্গে কাজ করতে চান না। আর সেই পরিচালকের বিরুদ্ধেই যৌন হেনস্থার অভিযোগ আসায় বেশ হতবাক বলিউড তারকারা। 

এবার রাজকুমার হিরানির বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হেনস্থার অভিযোগ নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। এ বিষয়ে  ইনস্টাগ্রামে একটি পোস্ট করে তিনি বলেন, “আমি এমন অভিযোগে ভীষণ আঘাত পেয়েছি। আমি রাজু স্যারকে দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে চিনি, শ্রদ্ধা করি। আমি এখন শুধুমাত্র অফিসিয়াল তদন্তের অপেক্ষায় রয়েছি। উনি ভদ্র একজন মানুষ। তবে সত্যের অপেক্ষায় আছি।” প্রসঙ্গত পরিচালকের জনপ্রিয় ছবি ‘লগে রাহো মুন্না ভাই’ ও ‘সঞ্জু’-তে দেখা গিয়েছে এই অভিনেত্রীকে।    

শুধু দিয়া মির্জাই নয়, এই বিষয় মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে মুখ খুলেছিলেন অভিনেত্রী অমরদীপ ঝা যিনি রাজু হিরানির একাধিক ছবিতে কাজ করে এসেছেন। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন,” আমি হতবাক, বিশ্বাস করতে পারছি না। ওনার মতো মানুষ যাঁকে আমি অনেক কাছ থেকে চিনি। সিনেমার সেটে উনি একজন দেবদূতের মত। উনি সিনেমার সেটে সকলের সঙ্গে সমান ব্যবহার করেন।  ওনার সম্পর্কে আমি এমনটা স্বপ্নেও ভাবতে পারি না। ওই মহিলা যা বলেছেন তাঁর বক্তব্যের ঠিক বেঠিক বিচার করা উচিত নয়। তবে  আমি ভীষণভাবে বিশ্বাস করি উনি  এমনটা করেন নি। এমনকি ওনাকে সিনেমার সেটে একটা খারাপ মন্তব্য, বা মজা করতেও দেখিনি কখনও।  আমি নিগৃহীতাকে চিনি না, কী ঘটেছে জানিও না। তবে সঠিক বিচারের আশা রাখছি।”   

#MeeToo-র ভূত ছেড়ে দেয়নি কাউকেই। তবে এবার বিতর্কের শিরনামে বলিউডের অন্যতম সফল পরিচালক রাজকুমার হিরানির নামই উঠে আসছে। হঠাৎ এমন কী করলেন তিনি?

অভিযোগ উঠেছে এই যে ‘সঞ্জু’ ছবির পোস্ট প্রোডাকশন চলাকালীন এক তরুণীকে একাধিকবার যৌন হেনস্থা ও নিগ্রহ করেছেন এই পরিচালক। গত বছর মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলেছে পোস্ট প্রোডাকশনের কাজ। ঠিক সে সময় রাজুর নিগ্রহ ও হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন ওই তরুণী।  ‘সঞ্জু’র অন্যতম প্রযোজনা সংস্থা বিধু বিনোদ চোপড়া ফিল্মসের দুই কর্ণধার বিধু বিনোদ ও তাঁর স্ত্রী অনুপমা চোপড়াকে ইমেলের মাধ্যমে বিস্তারিত জানান ওই নিগৃহীতা।

তারপর থেকেই নাকি রাজুর সঙ্গে দূরত্ব বজায় রেখেছেন প্রযোজক বিধু বিনোদ চোপড়া।  শুধু তাই নয়, অনুপমা চোপড়াও সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন এই বিষয় নিগৃহীতাকে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করবেন তিনি । এবং অভিযোগের নিষ্পত্তিও করতে চান বলে জানান এই চলচ্চিত্র সমালোচক।

পরিচালক রাজকুমার হিরানির সঙ্গে বিধু বিনোদ চোপড়া কাজ করেছেন বহুদিন ধরে।  ‘থ্রি ইডিয়টস’, ‘পিকে’,’সঞ্জু’-র মত ব্লকবাস্টার ছবিতে একসঙ্গে দেখা গিয়েছে এই পরিচালক-প্রযোজক জুটিকে। কিন্তু এতদিনের সম্পর্ক থাকা সত্তেও এত বড় অভিযোগে পরিচলকের পাশে থাকতে দেখা গেল না প্রযোজক দম্পতিকে। জানা যাচ্ছে, যে মুন্নাভাই সিক্যয়েল নিয়ে ফিরতে চলেছিলেন পরিচালক তা আপাতত স্তগিত থাকবে। তবে শেষ অবধি এই অভিযোগের শেষ কোথায় বা এই অভিযোগের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

সম্প্রতি ‘মি টু’র ঝড় ওঠে বলিউডে। অভিনেত্রী থেকে শুরু করে সিনেমার জগতের সঙ্গে সম্পর্কিত প্রত্যেক কলাকুশলী তাঁদের সঙ্গে হওয়া কিছু শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সরব হন। আর সেই অভিযুক্তদের তালিকায় ছিলেন বলিউডের ‘সংস্কারী বাবা’ ওরফে অলোকনাথ।

সম্প্রতি একজন প্রযোজক তথা চিত্রনাট্যকার নিজের ফেসবুক ওয়ালে পরিষ্কারভাবে অলোকনাথের বিরুদ্ধে ১৯ বছর আগে হওয়া শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষণের অভিযোগ আনেন। এমনকি ওশিওয়ারা থানায় অলোকনাথের বিরুদ্ধে পাঁচ পাতার একটি অভিযোগপত্র জমা দেন তিনি। আর সেই সময়ই আগাম জামিনের আর্জি জানান অলোকনাথ। তবে সম্প্রতি সেই আর্জি খারিজ করেন মুম্বই সেশন কোর্ট।

এর আগেও অলোকনাথ দীনদশী সেশন কোর্টে আগাম জামিনের আর্জি করেন, কিন্তু সেটিও কোর্টের তরফ থেকে বাতিল করে দেওয়া হয়। আপাতত যে কোন সময় হাতে হাতকড়া পরিয়ে জেলে নিয়ে যেতে পারে পুলিশ। এরপর কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়,এখন শুধু তারই অপেক্ষা।

রেসিপি

error: Content is protected !!