Travelogue

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

ড্রেসডেনের ডায়েরি

১৯৪৫-এ মিত্রশক্তির এরিয়া বম্বিংয়ের কবলে পড়ে ছারখার হয়ে গিয়েছিল অপরূপা ড্রেসডেন শহর। কিন্তু শহর গুঁড়িয়ে দিলেও মনের জোর হারাননি সব খোওয়ানো শহরবাসী। তিল তিল করে ফের গড়ে তুলেছেন নিজের শহর, হাতে হাত রেখে। ইতিহাসের অলিগলি বেয়ে চললেন রূপক বর্ধন রায়।

Read More »
Kumaon Himalaya

চলি বলি রংতুলি: কুমায়ুন পর্ব

এবার স্কেচের খাতা আর রং তুলি নিয়ে দেবাশীষ দেব পাড়ি জমালেন কুমায়ুন হিমালয়ের পথে পথে। ফার্স্ট স্টপ বিনসর। তারপর মুন্সিয়ারির আলিতে গলিতে।

Read More »
Barisal backwaters

যেতে পারি তাই ভেসে যাব

থাইল্যান্ডে দেখেছেন। দেখেছেন কাশ্মীরেও। কিন্তু খাস বাংলায়? অর্থাৎ কিনা বাংলাদেশে? বরিশালের জল-গলিতে ভটভটি চেপে ঘুরে বেড়াতে বেড়াতে শুভ্রময় মিত্র দেখলেন পাড়ঘেঁষা জোলোজীবন আর ভাসমান বাজারের বিকিকিনি। …

Read More »
Bhalopahar

চলিবলি রং তুলি: পচাপানি গ্রাম আর ভুঁইফোড় কবিরাজ

আদিবাসী এলাকার হাটে দিশি মদের ঠেক অবশ্যই একটা বড়ো আকর্ষণ, ঢাউস সমস্ত মাটির কলসি আর জেরিক্যান ভর্তি হাড়িয়া নিয়ে সার দিয়ে বসেছে মেয়েরা। ঠিক যেন ‘অরণ্যের দিনরাত্রি’ ছবির দৃশ্য। দেখে এলেন দেবাশীষ দেব। …

Read More »
Tea Estate

চা-পাহাড়ের জলছবি আর ডাওহিলের যিশু

এই বঙ্গের উত্তর দিকটায় প্রথম পছন্দ বরফের পাহাড়, সবারই। মহানন্দা স্যাঙ্কচুয়ারির বুক চিরে যেতে যেতে প্রথম টি ব্রেকটা নেবার সময় দেখি সামনে আদিগন্ত ছেয়ে আছে ছাইরঙা আকাশ, আর তার প্রান্তটা ঝুলে আছে দূরের ওই কালচে নীল পাহাড়গুলোর ঠিক মাথায়। আরও এগোতেই সামনে …

Read More »
Japan

জয় মুখার্জির সেই প্রেমের শহর টোকিও আজও অবিকল এক!

একশো বছর আগে যে দেশ দেখে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলেন কবিগুরু, একশো বছর পরেও সে দেশ একই ভাবে মুগ্ধ করে চলেছে আজকের পর্যটককে। তার শান্ত শোভার আনাচকানাচে ছড়িয়ে থাকা নাগরিক প্রাণচঞ্চলতা আর পরিচ্ছন্নতার পাঠ দেখে আশ্চর্য হলেন শ্রাবণী রায় আকিলা।…

Read More »

প্রেম যোশির দালানে মোটা রুটি, অহলদারার ন্যাড়া ছাদে বছরশেষের পার্টি

বিনসরের গাইড কিংবা অহলদারার কেয়ারটেকার দম্পতি… ফেলে আসা ভ্রমণপথে এঁরাই হয়ে থেকেছেন স্মৃতির ফসিল। এঁদের হাতের খাবার, যত্নআত্তি, গিটারের সুর, এই বন্দিজীবনেও ফিরিয়ে দেয় পর্বতভ্রমণের অলস মায়া।…

Read More »
Sishupalgarh

চেদীরাজ্য কি ওডিশায় ছিল? শিশুপালগড় কি সেই শিশুপালের নামে?

ভুবনেশ্বর থেকে গাড়ির রাস্তায় কিছু দূর গেলেই খ্রিস্টপূর্ব পঞ্চম শতাব্দীর প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষ দেখতে পাবেন। জায়গার নাম শিশুপালগড়। গাইড হলেন রঙ্গন দত্ত।

Read More »
Lachen

চলি বলি রংতুলি: হায় গুরুদোংমার লেক

স্কেচের খাতাটি বগলদাবা করে বেরিয়ে পড়া পাহাড়ি পথে। ঘুরে ঘুরে জীবন দেখা আর তাকেই ফুটিয়ে তোলা রং তুলিতে। দেবাশীষ দেবের কলামে এবার সিকিম ঘুরে ফেরার পালা।

Read More »
Paris Book shop

প্যারিসে, অন্য এক শেক্সপিয়র

প্যারিস। পর্যটকদের স্বর্গ। সারা বিশ্বের ভ্রমণপিপাসুদের ভিড় এখানে সম্বচ্ছর। কিন্তু সুগত আঁকছেন অন্য এক প্যারিসের নিসর্গ। বিখ্যাত সব বইয়ের দোকান, পথের ধারের ক্যাফে, কবি-সাহিত্যিকদের চারণভূমি প্যারিসের এক না-দেখা ছবি!

Read More »
Sikkim

চলি বলি রংতুলি: ভোর রাতে তুষারপাত

কয়েক সেকেন্ড লাগল ব্যাপারটা বুঝতে… রাতে বরফ পড়েছে। ঠিক করলাম এখনই বেরোতে হবে। হুড়মুড়িয়ে তৈরি হয়ে নিলাম। আকাশ নীল। ধীরে ধীরে রোদ উঠছে। বরফ গলতে আর কতক্ষণ!…

Read More »
Audierne by the Atlantic

দিনের পরে দিন: অজানা বৃতানি

ওয়াইনে চুমুক দিতে দিতেই হাজির হল মস্ত আকারের গরম গরম স্বাদের ক্রেপ। শেষ পাতে মিষ্টি খাবার অভ্যেস দুই বন্ধুরই। নোনতা ক্রেপ শেষ করে আমরা তাই খেলাম মিঠা ক্রেপ। যে ফরাসি ক্রেপের খ্যাতি বিশ্বজোড়া তার জন্মও কিন্তু এই বৃতানিতে।

Read More »
Lachen sketch by Debasis Deb

চলিবলি রং তুলি: লাচেনে ইয়াক জবাই

এখানে এসে পর্যন্ত খাতা খোলা হয়নি। চটপট একপাশে বসে পড়লাম গুম্ফা আঁকব বলে। লাচেনপা তো থ। বলল, ‘দেন ইয়ু আর অ্যান আর্টিস্ট! তোমাকে আমাদের পিপন-এর কাছে নিয়ে যাব, হি লাভস আর্ট।’ আগেই শুনেছিলাম এ সব অঞ্চলে সমান্তরাল ভাবে একটা শাসনব্যবস্থা চালু আছে। লোকেরা ইচ্ছেমতো একজনকে বছর চারেকের জন্য তাদের মেয়র হিসেবে বেছে নেয়। এই মেয়রকেই বলা হয় পিপন। তাঁর আদেশই সবাই মেনে চলে। ঠিক হল আজ বিকেলেই যাব পিপন-দর্শনে। লাচেনপা-র দেখলাম এবার একটু ইতস্ততঃ ভাব। বলল, “ওখানে সবার সামনে আমাকে কিন্তু ‘রিংঝিং’ বলে ডেকো, ওটাই আমার নাম।”

Read More »
chamba kailash trekking

চাম্বাকৈলাস মণিমহেশ (পর্ব ১)

রেলগাড়িতে হিমাচল ভ্রমণের সিংদরজা পাঠানকোট। সেখান থেকে বাসে চাম্বা শহর। দূরত্ব ১২০ কিমি। সময় লাগে ঘণ্টা পাঁচেক। বাস ছাড়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই রাস্তা ধীরে ধীরে ঊর্ধ্বমুখী। পথের ধারের গাছপালা বর্ষার জলে স্নান করে ঝকঝকে সবুজ। অনতিউচ্চ টিলাগুলো যেন ঘন সবুজ রঙের বাহারি চাদর মুড়ি দিয়ে উবু হয়ে বসে রয়েছে। অনেক নিচ থেকে উঠে আসা পাইন, ফার, দেবদারুর পাতা আলতো ছোঁয়া দিয়ে যায় বাসের জানালায়।…

Read More »
sketches by debasis deb

চলি বলি রংতুলি: ময়ূর পাহাড়ে সূর্যাস্ত কিংবা মিষ্টি গুলগুলা

আরও কিছুটা পথ এগোতেই দেখি পাগড়ি মাথায় কাঁচাপাকা দাড়িওলা একজন সুঠাম চেহারার লোক এগিয়ে আসছে। কাঁধে ফেলা তরোয়াল গোছের একটা জিনিস, যার আবার দুটো ফলা। লোকটাকে দাঁড় করিয়ে জেনে নিলাম একে দাউড়ি বলে এবং মহাশয়ের নাম পাহাড়ি সিং। জঙ্গলে জঙ্গলে গিয়ে গাছের ডাল কেটে বেড়ায়। নামটা বেশ মানানসই বলতে হবে। চট করে এর একটা স্কেচ না করলেই নয়!

Read More »
Illustrations by Debasis Deb পাহাড়ের মাথায় গ্রাম

চলি বলি রং তুলি: অযোধ্যা পাহাড় ও লুড়কুর চুল দাড়ি

অযোধ্যা পাহাড়ের মাথায় পৌঁছতে হলে পুরুলিয়া শহর থেকে সরাসরি বাস সার্ভিস আছে। আমি একা যাব, তাই সেটাই সুবিধের। আগে জয়চন্ডী পাহাড় ঘুরে রঘুনাথপুর থেকে মিনিবাসে চেপে ঘণ্টা দু’য়েক পর এলাম পুরুলিয়া সদরে। ততক্ষণে সন্ধ্যা হয়ে গেছে, ফলে রাতটা এখানেই  থেকে গেলাম একটা চলনসই গোছের হোটেলে। বাস ডিপোটা উল্টোদিকেই। পরদিন সাতসকালে উঠে হাজির হয়ে গেলাম।

Read More »