Tags Posts tagged with "VIVEK OBEROI"

VIVEK OBEROI

লিখেছেন -
0 1134

প্রথম ছবি কম্পানি তে অভিনয়ের জন্য খুবই প্রসংসিত হয়েছিলেন বিবেক ওবেরয় | ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ও পান এই ছবির জন্য | ওই একই বছর (২০০২) মুক্তি পায় সাথিয়া | এবং এই ছবি মুক্তি পাওয়ার পর কারুর মনে আর সন্দেহ থাকে না যে উনি একজন সফল এবং উচ্চমানের অভিনেতা হবেন | কিন্তু মন্দ কপাল হলে যা হয় ! বিবেক জড়িয়ে পরলেন ঐশ্বর্য রাইয়ের সঙ্গে | ব্যাস ! এরপর ওঁর জীবনে নেমে এলো দুর্ভাগ্য | কিছুদিনের মধ্যেই বলিউড থেকে হারিয়ে গেলেন উনি |

ঘটনার সুত্রপাত ৩১ মার্চ‚ ২০০৩ সাল | ওইদিন বিবেক একটা সাংবাদিক সম্মলেন ডেকে জানান সলমন খান নাকি ওঁকে হুমকি দিচ্ছেন | সেই সময় সলমন আর ঐশ্বর্যের জীবনে বেশ উথাল পাথাল চলছিল | খুব বেশীদিন হয়নি ঐশ্বর্য সলমনের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করে বিবেকের সঙ্গে ডেটিং করছিলেন |

অবশ্য ঐশ্বর্য বিবেকের সঙ্গে ওঁর সম্পর্কের কথা কোনদিনই স্বীকার করেননি | কিন্তু সেই সময় দুজনকে বিভিন্ন অনুষ্ঠান‚ পার্টিতে একসঙ্গে দেখা যেত | অন্যদিকে সলমন খানের সময় ভালো যাচ্ছিল না সেই সময়‚ এর কয়েকদিন আগে হিট অ্যান্ড রান কেসে জড়িয়েছেন উনি | দ্বিতীয়ত ঐশ্বর্যের সঙ্গে ব্রেক আপ |

সলমনের সঙ্গে ব্রেক আপের ফলে ঐশ্বর্যও সেই সময় মানসিক সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন | আর বেচারা বিবেক শুধুমাত্র ওঁর ভালো বন্ধুঐশ্বর্যের পাশে থাকতে চেয়েছিলেন | তাই উনি সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে সলমনের নামে অভিযোগ করেন |

বলা যেতে পারে এই সাংবাদিক সম্মেলনের কারণেই বিবেকের কেরিয়ার শেষ হয়ে গেল | ঐশ্বর্যের জন্য উনি এমনটা করেন | আর পরে ঐশ্বর্য সাফ জানিয়ে দেন উনি এই ব্যপারে কিছুই জানতেন না | এই ঘটনার পর অ্যাশ বিবেক কে এড়িয়ে চলতে আরম্ভ করেন |

সলমনের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য একরকম বয়কট করা হয় বিবেককে | ওঁর উজ্জ্বল ভবিষ্যতে নেমে আসে অন্ধকার | একবার প্রযোজক আদিত্য চোপরা বিবেক ওবেরয় সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে বলেছিলেন বিবেক একদিন শাহরুখ খান হতে পারতো | কিন্তু নিজের হাতে সেই সম্ভবনা শেষ করেছে সে |

এর বহু বছর বাদে ফারহা খানের টক শোতে উপস্থিত হয়েছিলেন বিবেক | সেই সময় বিবেক পরোক্ষভাবে জানিয়েছিলেন ঐশ্বর্য ওঁকে সাংবাদিক সম্মেলন ডাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন | কিন্তু পরে উনি তা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেন এবং বিবেককে একা ছেড়ে দেন | | এছাড়াও বিবেক জানিয়েছিলেন সলমনের ভাই সোহেল খানের সঙ্গে গভীর বন্ধুত্ব ছিল ওঁর | কিন্তু সলমনের বিরুদ্ধে কথা বলার ফলে সেই বন্ধুত্বও শেষ হয়ে যায় | পরে অবশ্য বিবেক বহুবার সলমনের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন | কিন্তু সলমন ওঁকে মাফ করেননি |

তারপর কেটে গেছে ১৫ বছর‚ বিবেক কিন্তু এখনো সেই ঘটনার মাশুল দিচ্ছেন |  অন্যদিকে সলমন আর ঐশ্বর্য কিন্তু দিন কে দিন উন্নতি করেছেন | আর বিবেক ওঁদের মাঝে পড়ে বলিউডের একজন সাধারণ অভিনেতা হয়ে রয়ে গেলেন !

২০১৯ এর সাধারণ নির্বাচনের হাওয়া বইছে বলিউডেও। সেই জন্যই রাজনৈতিক চরিত্রদের ভিড় বেড়েছে বড়পর্দায়। কিছুদিন আগেই দর্শকের সামনে এসেছে বহুল চর্চিত ছবি ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল প্রাইম মিনিস্টার’-র  ট্রেলার। আর সেই ছবির গা ঘেঁষেই দর্শকদের চমকে দিয়েছে রিল লাইফ নরেন্দ্র মোদী। গত ৭ জানুয়ারি রিলিজ হয়েছে ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিকের প্রথম লুক।  

রিলিজের সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় অধিক পরিমাণে সাড়া ফেলে দেয় পোস্টারটি। নানাভাবে ট্রোল শুরু হয় নেট দুনিয়ায়। 

ছবিটিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন বিবেক ওবেরয়। একদিকে যেমন উঠে আসছে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ,তেমনই নেটিজেনদের হাত থেকে ছাড় পাচ্ছেন না অভিনেতাও। বিবেককে উদ্দেশ্য করে বলা হয় “নরেন্দ্র মোদীর চরিত্রে অভিনয় করতে চলেছেন বিবেক,আর সবাই শুধুই মোদীজিকে দোষ দিচ্ছেন যে তিনি বেকারদের চাকরি দেন না”।  

প্রসঙ্গত,ছবির পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন ওমঙ্গ কুমার,এবং প্রযোজনা করছেন বিবেক ওবেরয়ের বাবা সুরেশ ওবেরয় এবং সন্দীপ সিং। পরিচালকের বক্তব্য অনুযায়ী ২০১৯ এর সাধারণ নির্বাচনের আগেই ছবিটি রিলিজ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু এখনও পাকাপাকিভাবে কোন দিন ঠিক করা হয় নি। তবে এমনও জানা গিয়েছে ছবির বেশিরভাগ অংশই শুট করা হবে গুজরাটে। 

অভিনয় জীবনে সাফল্য নাই বা পেলেন‚ কিন্তু জীবন সঙ্গী পাওয়ার বেলায় খুবই লাকি বিবেক ওবেরয় ! বলিউডে বড় ব্রেক পেতে হয়তো ওঁকে অনেক লড়াই করতে হয়েছে‚ কিন্তু বললে বিশ্বাস করবেন না বিয়ের আগে ওঁর বর্তমান স্ত্রী প্রিয়াঙ্কা আলভা কে দেখার কুড়ি মিনিটের মধ্যে ওঁর প্রেমে পড়েন বিবেক | আর সেই প্রেম এখনো কিন্তু বিন্দুমাত্র কমেনি |

আলভা আর ওবেরয়দের মধ্যে বন্ধুত্ব বহুদিনের | ছোটবেলায় প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে কয়েকবার দেখা হলেও বড় হওয়ার পর‚ ওঁদের যোগাযোগ ছিল না | দুজনেই দুজনের কেরিয়ার নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন | ইতিমধ্যে পরিবারের বড়রা বন্ধুত্ব কে আত্মীয়তায় পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেন | ওঁদের হয়তো অ্যারেঞ্জড ম্যারেজ‚ কিন্তু বিয়ের আগেই প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েন বিবেক |

বিবেক মুম্বাই থেকে ফ্লোরেন্সে উড়ে যান প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে দেখা করতে | বিবেক আগে থেকেই এই বিয়ের বিরুদ্ধে ছিলেন | শুধুমাত্র বাবা মায়ের মন রাখার জন্য প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে দেখা করতে রাজি হয়েছিলেন উনি | কিন্তু প্রিয়াঙ্কা কে দেখার মর মতের পরিবর্তন হয় বিবেকের | একটা ছোট্ট দোকানে কফি খেতে খেতে সাক্ষাতের মাত্র ২০ মিনিটের মাথায় প্রিয়াঙ্কার মধ্যে আদর্শ জীবনসঙ্গীকে খুঁজে পান বিবেক |  

অবশ্য শুধু বিবেকের একার যে প্রিয়াঙ্কাকে ভাল লেগেছিল এমনটা নয় | প্রিয়াঙ্কার ও বেশ পছন্দ হয় বিবেককে | পরে একটা সাক্ষাৎকারে বিবেক জানিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কার সরলতায় মোহিত হয়েছিলেন উনি | 

বিয়ের তারিখ ঠিক হয় ২৯ অক্টোবর‚ ২০১০ | ব্যাঙ্গালোরের একটা পাঁচতারা হোটে সম্পন্ন হয় ওঁদের বিয়ের অনুষ্ঠান | বি-টাউনের অন্যতম ব্যায়বহুল বিয়ের তালিকায় বিবেক-প্রিয়াঙ্কার বিয়ে বেশ ওপরের দিকে থাকবে | বিয়ের মন্ডপ সাজানো হয়েছিল পঁচিশ হাজার অমূল্য শোরোস্কির ক্রিস্টেল দিয়ে |

এখানেই শেষ নয় ওঁদের বিয়ের কার্ড বানানো হয়েছিল সোনা ও বিভিন্ন দামী রত্ন দিয়ে | ওই কার্ডের ডিজাইন করেছিলেন প্রিয়াঙ্কার মা |

বিয়ের পর সুখে শান্তিতে এক ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে সুখে সংসার করছেন বিবেক ও প্রিয়াঙ্কা |

বলিউডে বেশ কয়েকবছর জুড়েই চলছে বায়োপিক ঝড়। খেলা থেকে শুরু করে রাজনীতি কোন কিছুকেই তুলে ধরতে বাকি রাখেনি বলিউড। শিবসেনা প্রধান বালাসাহেব ঠাকরে এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-র জীবনের উপর ভিত্তি করে তৈরি হওয়া ছবির ট্রেলর ইতিমধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে বলিউডে। এর পাশাপাশি বাড়তি পাওনা হিসেবে দর্শক নতুন বছরেই নাকি পেতে চলেছেন আরও একটি রাজনৈতিক চরিত্রের জীবনকাহিনি। তিনি আর কেউ নন, স্বয়ং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আর মোদীর জীবনের উপর সিনেমা করতে চলেছেন বলিউডের পরিচালক উমঙ্গ কুমার। জানা গিয়েছে ইতিমধ্যেই ছবির প্রি-প্রোডাকশনের-র কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। নতুন বছরেই নাকি দর্শকদের সামনে আসতে চলেছে মোদীর জীবনকাহিনি। তবে জানেন কি মূল চরিত্রে পরিচালকের পছন্দ অভিনেতা বিবেক ওবেরয়কে।

‘গ্র্যান্ড মস্তি’ ও ‘গ্রেট গ্র্যান্ড মস্তি’ সহ ‘ক্রিশ ৩’র পরেও সেভাবে বলিউডে গতি ফেরাতে পারেন নি বিবেক ওবেরয়। কেরিয়ারের এই ধংসের জন্য একসময় সলমন খানকে দোষী বানালেও পরে ক্ষমা চাইতে বাদ্ধ্য হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এত কিছুর পরেও পরিচালকের পছন্দে এই বায়োপিকে মূল চরিত্রে থাকছেন তিনি।

এমনও শোনা গিয়েছে, প্রথমে এই চরিত্রটির জন্য বলিউডের বিশিষ্ট কৌতুকাভিনেতা পরেশ রাওয়ালকে বাছাই করা হয়েছিল। তবে শেষ মুহূর্তে ছবি থেকে সরে আসেন পরেশ। ফলে সেই স্থান পূরণ করেন বিবেক। একটি সংবাদমাধ্যমকে জানানো তথ্য থেকে জানা যায়, ছবির নাম এখনও ঠিক করা হয়নি। তবে বেশিরভাগ অংশের শুটিং হবে গুজরাট, দিল্লি ও হিমাচলে।

রেসিপি

error: Content is protected !!