টুং সোনাদা ঘুম পেরিয়ে...

Previous
Next

অনেক কষ্টে কেভেন্টারসের ছাদে একটা চেয়ারের দখল পেয়েছেন। প্রত্যাশিত হ্যাম স্যান্ডউইচ আর হট চকলেট  এসেও গেছে টেবিলে। দূরে একটা স্যাটিন নীল আকাশের চকচকে গায়ে সুন্দরীর উদাসীনতা আর তাচ্ছিল্য নিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা। ঘন্টাখানেকের মধ্যে, নীচের পাহাড়ের খাঁজে ভাঁজে জমে থাকা সাদা তুলোর মেঠাইয়ের মতো মেঘগুলো কাঞ্চনের চওড়া বুকে রাতের মতো আশ্রয় নেবে। নেহরু রোডের আলোগুলো একে একে জ্বলে উঠে মেঘের সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে থাকবে। মল রোডের রডোডেনড্রন গাছের নীচে মুড়িশুড়ি দিয়ে দার্জিলিং-এর রাত, একটা পাঁউরুটিগন্ধী ভোরের জন্য অপেক্ষা করতে করতে ঘুমিয়ে পড়বে।