Tags Posts tagged with "aishwarya rai bachchan"

aishwarya rai bachchan

লিখেছেন -
0 1100

প্রথম ছবি কম্পানি তে অভিনয়ের জন্য খুবই প্রসংসিত হয়েছিলেন বিবেক ওবেরয় | ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ড ও পান এই ছবির জন্য | ওই একই বছর (২০০২) মুক্তি পায় সাথিয়া | এবং এই ছবি মুক্তি পাওয়ার পর কারুর মনে আর সন্দেহ থাকে না যে উনি একজন সফল এবং উচ্চমানের অভিনেতা হবেন | কিন্তু মন্দ কপাল হলে যা হয় ! বিবেক জড়িয়ে পরলেন ঐশ্বর্য রাইয়ের সঙ্গে | ব্যাস ! এরপর ওঁর জীবনে নেমে এলো দুর্ভাগ্য | কিছুদিনের মধ্যেই বলিউড থেকে হারিয়ে গেলেন উনি |

ঘটনার সুত্রপাত ৩১ মার্চ‚ ২০০৩ সাল | ওইদিন বিবেক একটা সাংবাদিক সম্মলেন ডেকে জানান সলমন খান নাকি ওঁকে হুমকি দিচ্ছেন | সেই সময় সলমন আর ঐশ্বর্যের জীবনে বেশ উথাল পাথাল চলছিল | খুব বেশীদিন হয়নি ঐশ্বর্য সলমনের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করে বিবেকের সঙ্গে ডেটিং করছিলেন |

অবশ্য ঐশ্বর্য বিবেকের সঙ্গে ওঁর সম্পর্কের কথা কোনদিনই স্বীকার করেননি | কিন্তু সেই সময় দুজনকে বিভিন্ন অনুষ্ঠান‚ পার্টিতে একসঙ্গে দেখা যেত | অন্যদিকে সলমন খানের সময় ভালো যাচ্ছিল না সেই সময়‚ এর কয়েকদিন আগে হিট অ্যান্ড রান কেসে জড়িয়েছেন উনি | দ্বিতীয়ত ঐশ্বর্যের সঙ্গে ব্রেক আপ |

সলমনের সঙ্গে ব্রেক আপের ফলে ঐশ্বর্যও সেই সময় মানসিক সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলেন | আর বেচারা বিবেক শুধুমাত্র ওঁর ভালো বন্ধুঐশ্বর্যের পাশে থাকতে চেয়েছিলেন | তাই উনি সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে সলমনের নামে অভিযোগ করেন |

বলা যেতে পারে এই সাংবাদিক সম্মেলনের কারণেই বিবেকের কেরিয়ার শেষ হয়ে গেল | ঐশ্বর্যের জন্য উনি এমনটা করেন | আর পরে ঐশ্বর্য সাফ জানিয়ে দেন উনি এই ব্যপারে কিছুই জানতেন না | এই ঘটনার পর অ্যাশ বিবেক কে এড়িয়ে চলতে আরম্ভ করেন |

সলমনের বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য একরকম বয়কট করা হয় বিবেককে | ওঁর উজ্জ্বল ভবিষ্যতে নেমে আসে অন্ধকার | একবার প্রযোজক আদিত্য চোপরা বিবেক ওবেরয় সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে বলেছিলেন বিবেক একদিন শাহরুখ খান হতে পারতো | কিন্তু নিজের হাতে সেই সম্ভবনা শেষ করেছে সে |

এর বহু বছর বাদে ফারহা খানের টক শোতে উপস্থিত হয়েছিলেন বিবেক | সেই সময় বিবেক পরোক্ষভাবে জানিয়েছিলেন ঐশ্বর্য ওঁকে সাংবাদিক সম্মেলন ডাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন | কিন্তু পরে উনি তা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেন এবং বিবেককে একা ছেড়ে দেন | | এছাড়াও বিবেক জানিয়েছিলেন সলমনের ভাই সোহেল খানের সঙ্গে গভীর বন্ধুত্ব ছিল ওঁর | কিন্তু সলমনের বিরুদ্ধে কথা বলার ফলে সেই বন্ধুত্বও শেষ হয়ে যায় | পরে অবশ্য বিবেক বহুবার সলমনের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন | কিন্তু সলমন ওঁকে মাফ করেননি |

তারপর কেটে গেছে ১৫ বছর‚ বিবেক কিন্তু এখনো সেই ঘটনার মাশুল দিচ্ছেন |  অন্যদিকে সলমন আর ঐশ্বর্য কিন্তু দিন কে দিন উন্নতি করেছেন | আর বিবেক ওঁদের মাঝে পড়ে বলিউডের একজন সাধারণ অভিনেতা হয়ে রয়ে গেলেন !

২০ এপ্রিল‚ ২০০৭ সালে ঐশ্বর্য রাই ও অভিষেক বচ্চন বিয়ের পিঁড়িতে বসেন | ২০১১ সালে জন্মায় মেয়ে আরাধ্যা | বিয়ের পর কেটে গেছে দশ বছর কিন্তু আজও ওঁদের দেখে অনেকেই অনুপ্রেরণা নেন | ফেমাসলি  ফিল্মফেয়ার-এর সেকেন্ড সিজনের একটা এপিসোডে উপস্থিত ছিলেন অ্যাশ | ইতিমধ্যেই সেই এপিসোডেল প্রমো মুক্তি পেয়েছে | প্রমোতে অভিনেত্রী জানিয়েছেন অভিষেক ওঁকে বিয়ের জন্য প্রপোজ করার কয়েকদিনের মধ্যেই হঠাৎ করে ওঁদের রোকা অনুষ্ঠিত হয় |রোকা অনুষ্ঠান এতটাই হঠাৎ করে হয়েছিল যে ঐশ্বর্য নিজে এবং ওঁর পরিবারের বাকিরা এর জন্য তৈরী ছিলেন না |

এখানেই শেষ নয় বিয়ের আগে রোকা অনুষ্ঠানের মানেও জানতেন না ঐশ্বর্য | ওঁর কথায় আমরা সাউথ ইন্ডিয়ান‚ তাই বিয়ের আগে রোকার মানে জানতাম না | হঠাৎ ওঁদের বাড়ি থেকে ফোন এলো যে ওঁরা আসছে |

অভিষেক যখন অমিতাভ ও জয়া কে নিয়ে ঐশ্বর্যের বাড়ি যাবেন বলে ঠিক করেন সেই সময় অ্যাশের বাবা শহরের বাইরে ছিলেন | ঐশ্বর্য জানিয়েছেন অভিষেক বললো আমরা বাড়ি থেকে বেড়িয়ে পরেছি | আমরা আসছি | আমি তখনো বিশ্বাস করতে পারছিলাম না যে রোকা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে |

উনি আরো যোগ করেন মা বাড়িতে ছিল | ওঁরা সবাই এলো | সবাই খুব ইমোশনল হয়ে গেছিল | আমি তখনো বিশ্বাসই করতে পারছিলাম না | সব যেন এক মুহুর্তের মধ্যে শেষ হয়ে গেল | ওঁরা যাওয়ার পর মায়ের কাছে জানতে চাইলাম মা আমার এনগেজমেন্ট হয়ে গেল?

পরে অবশ্য অ্যাশের বাবা ফিরে আসার পর অমিতাভ বচ্চনের বাড়ি জলসাতে অভিষেক ও ঐশ্বর্যের এনগেজমেন্ট উপলক্ষে এক বড় পার্টির ব্যবস্থা করেন বিগ বি |

প্রসঙ্গত অভিষেক ঐশ্বর্যে কে নিউ ইয়র্কের হোটেলের ব্যলকনিতে প্রপোজ করেছিলেন | একটা সাক্ষাৎকারে অভিষেক বলেন আমি নিউ ইয়র্কে শ্যুটিং করছিলাম | হোটেলের ব্যলকনিতে দাঁড়িয়ে আমি ভেবেছিলাম যদি কোনদিন বিয়ের পর এই ব্যলকনিতে ঐশ্বর্যের সঙ্গে দাঁড়িয়ে গল্প করতে পারি তাহলে দারুণ ব্যপার হবে | কয়েকবছর বাদে আমরা গুরু ছবির প্রেমিয়ারে ওখানে উপস্থিত হয়েছিলাম | প্রেমিয়ারের পর ঐশ্বর্য কে নিয়ে হোটেলে যাই‚ ওই একই ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে ওঁকে বিয়ের জন্য প্রপোজ করি |

একই ছবিতে সলমন খান‚ ঐশ্বর্য রাই আর অভিষেক বচ্চন ! বিস্বাস হচ্ছে না তো? কিন্তু সত্যিই এমন একটা ছবি আছে যাতে ওঁরা তিনজনেই ছিলেন| ছবির নাম ”ঢাই অক্ষর প্রেম কে” | এই ছবির মুখ্য চরিত্রে ছিলেন অভিষেক ও ঐশ্বর্য | ২০০০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিতে প্রথমবার বড় পর্দায় অ্যাশ-অভি কে দেখা গেছিল |

এই ছবিতে ছিলেন সলমন খান ও | যদিও ওঁকে দেখা গেছিল একটা ছোট চরিত্রে | সলমন কে একজন ট্রাক চালকের ভূমিকায় দেখা যায় | ওই ট্রাক চালকের সাহায্যেই ছবির নায়ক মানে অভিষেক আবার ফিরে পান ঐশ্বর্য অভিনীত চরিত্রকে |

সব থেকে আশ্চর্যজনক ব্যপার হলো ওই সময় রিয়েল লাইফে সলমনের সঙ্গে প্রেম করছেন ঐশ্বর্য | তখন কেই বা জনতো ভবিষ্যতে অ্যাশের বিয়ে হবে অভির সঙ্গে | আসলে সময়ের সঙ্গে সব কিছু পাল্টে যায় | তাই না?

লিখেছেন -
0 1213

আট বছর আগে ১৯ নভেম্বার মুক্তি পায় সঞ্জয় লীলা ভনসালি পরিচালিত ‘গুজারিশ’ | ছবির গল্প একজন ম্যাজিসিয়ান কে ঘিরে যে প্যারালাইসিসের শিকার হয় খেলা দেখাতে গিয়ে | এই ছবিকে ঘিরে বিভিন্ন বিতর্কের সৃষ্টি হয় | আর এই ছবির মুক্তির সঙ্গে সঞ্জয় লীলার সঙ্গে সলমন খানের সম্পর্কও বিষিয়ে যায় |

তার আগে সঞ্জয় লীলার সঙ্গে সলমনের সম্পর্ক খুবই ভালো ছিল | দু’জনে সুপারহিট ‘হম দিল দে চুকে সনম’ ছবিতে কাজ করেছিলেন‚ ওইসময় সঞ্জয় লীলা সলমনের সঙ্গে বাজিরাও মস্তানি করবেন বলে ঠিক করেন | ওই একই সময় সলমন সঞ্জয় লীলা কে ক্রিস্টোফার নোলানের ‘দা প্রেস্টিজ’ ছবির ডিভিডি উপহার দেন | যার থেকে ‘গুজারিশ’ ছবি করার আইডিয়া আসে সঞ্জয় লীলার মাথায় |

সলমন আশা করেছিলেন ‘গুজারিশ’ ছবিতে ঐশ্বর্য রাইয়ের বিপরীতে ওঁকে নেওয়া হবে | কিন্তু তার বদলে হৃত্তিক রোসন কে নেওয়া হয় মুখ্য চরিত্রে | এইনিয়ে অবশ্য খোলাখুলি কোনদিনই কোনরকম অসন্তোষ প্রকাশ করেননি সলমন | কিন্তু একটা সাক্ষাৎকারে এই ছবি সম্পর্কে সলমন এমন কিছু মন্তব্য করেন যা থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় ওঁর মনোভাব |

ছবির একটা দৃশ্য সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে সলমন বলেন ‘ ওই দৃশ্যে একটা মাছি উড়ছিল | কিন্তু একটাও মশাও ওই ছবি দেখতে যায়নি |’ উনি আরো বলেন ওই ছবি এতটাই অযোগ্য যে একজনও ওই ছবি দেখতে যায়নি |

ছবি সম্পর্কে সলমনের এই চরম মন্তব্য শেষ করে দেয় সঞ্জয় লীলা ভনসালির সঙ্গে ওঁর বন্ধুত্ব | তারপর কেটে গেছে অনেকটা সময়‚ কিন্তু আজও অভিনেতা ও পরিচালকের সম্পর্ক ঠিক হয়নি |

রেসিপি

error: Content is protected !!