নতুনদের সুযোগ দেবে কঙ্গনা

নতুনদের সুযোগ দেবে কঙ্গনা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

যে কোনও ধরনের চরিত্রে সাবলীল উনি| সম্প্রতি ছবি পরিচালনাও করেছেন| এই বার প্রযোজকের ভূমিকায় দেখা যাবে কঙ্গনা রানাওয়তকে| জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রীর প্রযোজনা সংস্থা ‘মণিকর্ণিকা ফিল্মস’ জানুয়ারি মাসে কাজ আরম্ভ করবে| ইতিমধ্যেই মুম্বইয়ের পালি হিলে স্টুডিয়োর জন্য জায়গা কিনেছেন উনি| ২০১৭ সালে নিজের প্রযোজনা সংস্থা খোলার কথা প্রথম জানিয়েছিলেন কঙ্গনা| নতুন প্রতিভাদের সুযোগ দেওয়াই হবে অভিনেত্রীর প্রযোজনা সংস্থার প্রধান কাজ|

সম্প্রতি একটা সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা জানিয়েছেন প্রথমটায় শুধুমাত্র কম বাজেটের ছবি করতে আগ্রহী উনি| তাঁর শেষ মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘জ্যাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’-র উদাহরণ টেনে উনি বলেন ‘যদি ওই ছবি আমাকে ছাড়া ১০ কোটি বাজেটে বানানো হত‚ তবে ছবিটা সুপারহিট হত‚ কারণ ছবিটা ৪০ কোটি টাকার ব্যাবসা করেছে| কিন্তু ছবিটা বানানো হয়েছে ৩০কোটি টাকায় তাই লাভ হয়নি| আমি তাই কম বাজেটের ছবি দিয়ে আরম্ভ করব| পরে হয়তো বড় বাজেটের ছবি করতে পারি ‚ তবে এখনই নয়|’ একই সঙ্গে উনি জানিয়েছেন ওয়েব সিরিজ ও প্রযোজনা করতে আগ্রহী|

তবে নিজের প্রযোজিত ছবিতে অভিনয় করবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন কঙ্গনা| ওঁর কথায় ‘চারিদিকে অনেক নতুন ট্যালেন্ট আছে| তাদের সুযোগ দেওয়াই হবে আমার প্রযোজনা সংস্থার প্রধান কাজ| অনেক ভাল ভাল স্ক্রিপ্ট শুনছি | আমি চাই না এই স্ক্রিপ্টগুলো হারিয়ে যাক| আমি চেষ্টা করব এই স্ক্রিপ্টগুলোকে বড় পর্দায় নিয়ে আসার|’  ‘

এই মুহুর্তে কঙ্গনা‚ জয়ললিতার বায়োপিক ‘থালাইভা’-র প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত আছেন| এ ছাড়াও ওঁকে অশ্বিনী আইয়ার তিওয়ারীর ছবি ‘পঙ্গা’ ও অ্যাকশন থ্রিলার ‘ধক্কড়’-এ দেখা যাবে|

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।