বাড়ি করবো পাহাড় চূড়ায়

balaji

ডুয়ার্স নামটা শুনলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে সবুজ চা বাগান‚ নদী‚ জঙ্গল ও অপার্থিব শান্তি| ডুয়ার্স শব্দের অর্থ দরজা বা প্রবেশদ্বার| পূর্ব হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত ডুয়ার্স বাঙালিদের প্রিয় পর্যটন কেন্দ্রের মধ্যে অন্যতম| শহরের কোলাহল থেকে দূরে যদি বাকি জীবনটা কাটাতে চান তাহলে শ্রী বালাজি প্রজেক্টের পান্থনিবাসে কিনতে পারেন একটা বাড়ি|

ডুয়ার্স থেকে অনায়াসে ঘুরে আসতে পারেন দার্জিলিং| বা ইচ্ছা করলেই পৌঁছে যেতে পারেন গোরুমারা অভয়ারণ্য‚ মিরিক‚ কালিপং বা লাভা লোলেগাঁও| নিছক ঘোরাঘুরি করতে ভাল না লাগলে পান্থনিবাসে‚ নিজের বাড়ির স্বাচ্ছন্দ্যে‚ বাইরের শোভা দেখতে দেখতে চুমুক দিতে পারেন গরম চায়ে|

গত দশ বছরে একাধিক হাউজিং প্রজেক্ট‚ হোটেল নির্মাণ করেছ শ্রী বালাজি| অন্য সবার থেকে শ্রী বালাজী পৃথক| কারণ গ্রাহকদের কাছে তারা যা প্রতিজ্ঞা করে তাই রাখার চেষ্টা করে| এই কারণেই ২০১৪ সালে তারা পেয়েছে ‘ন্যাশনল বিল্ডার অ্যাওয়ার্ড’| এছাড়াও শ্রী বালাজি পেয়েছেন ২০১৬-তে ইয়াং অন্ত্রেপ্রেনার অফ ইন্ডিয়া পুরস্কার| এখানেই শেষ নয় ওঁদের ঝুলিতে আছে আরও পুরস্কার যেমন ইলেভেন্থ রিয়েলটি প্লাস কনক্লেভ অ্যান্ড একসিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯১‚ রিয়েল এস্টেট এক্সসিলেন্স অ্যাওয়ার্ড ২০১৯‚দ্যা রিয়েলটি লিডারস অ্যাওয়ার্ড ২০১৯ এবং এস্টেট অ্যাওয়ারডস ২০১৯

ভবিষ্যতে সোনারপুরে একটা টাউনশিপ গড়ার ইচ্ছা আছে শ্রী বালাজির| এছাড়াও শান্তিনিকেতনে বিশ্ব ভারতীর কাছে ইতিমধ্যেই তৈরি হচ্ছে তাদের হাউজিং প্রজেক্ট | এছাড়াও দীঘা এবং পুরীতেও তৈরি হবে ওঁদের পান্থনিবাস|

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

afgan snow

সুরভিত স্নো-হোয়াইট

সব কালের জন্য তো সব জিনিস নয়। সাদা-কালোয় উত্তম-সুচিত্রা বা রাজ কপূর-নার্গিসকে দেখলে যেমন হৃদয় চলকে ওঠে, এ কালে রণবীর-দীপিকাকে দেখলেও ঠিক যেমন তেমনটা হয় না। তাই স্নো বরং তোলা থাক সে কালের আধো-স্বপ্ন, আধো-বাস্তব বেণী দোলানো সাদা-কালো সুচিত্রা সেনেদের জন্য।স্নো-মাখা প্রেমিকার গাল নিশ্চয়ই অনের বেশি স্নিগ্ধ ছিল, এ কালের বিবি-সিসি ক্রিম মাখা প্রেমিকাদের গালের চেয়ে।