দু’টি কবিতা: শঙ্খ ঘোষ, নবনীতা দেব সেন

1056
Sankha ghosh nabanita dev sen

শুরু হল বরণীয় লেখকদের স্মরণীয় লেখার সিরিজ। বাংলাইভের খনি থেকে একে একে হিরে-মণি-মানিক বেরিয়ে আসতে থাকবে একে একে। কেবল ধৈর্য ধরে অপেক্ষা। আজ প্রথম পর্ব। কবি শঙ্খ ঘোষ ও নবনীতা দেব সেন-এর কবিতা দিয়ে যাত্রা শুরু।

আহত হবার দিন

শঙ্খ ঘোষ

আহত হবার দিন তােমার মুখের রেখা ঠিক

কতখানি ঢেউ দেয়, ভাবাে।

এত কি সহজে ধরা দেবে?

চলে এসাে এইখানে, এসাে এই গঙ্গার কিনারে

শ্মশানের পাশে বসে সামনে তাকিয়ে দেখাে। দেখাে বহমান

ভাবাে এর ইতিহাস, ভাবাে-বা পরাণ, কথকতা,

কত মেঘমন্ডলের অন্ধকার শুষে নিয়ে জেগে ওঠে রুপােলি বলয়, বলাে

‘আমিও কি ততখানি নই?’

আহত হবার দিন তােমার মুখের রেখা দেখে

কীভাবে জানবে কেউ? কেউ কিছু জানতেও পারে না তুমি জয়ী।

শিলা

নবনীতা দেব সেন

চল্লিশ বছর হলাে

দেখা হয়নি।

এমনকি স্বপ্নেও —

এমনকি স্বপ্নেও আপনি

চূড়ান্ত সাবধানী

সুরক্ষাচক্রের মধ্যে সতর্কে লুকোন ৷

তথাপি সে শাদা কার্নেশন

চল্লিশবছর ধরে ফুটে থাকে

অন্ধকার মাঠে

উইপিং উইলােকে ছুঁয়ে

বহে যায় সানবনার ধারা

নদীতে প্রবাসী নৌকো

দাঁড় টানছে পূর্বজন্ম বসে।

এত সব সত্য, তবু

চল্লিশ বছর ধরে দেখা হয় না, দেখা

হয় না, দেখা হয় না, এমন কি স্বপ্নেও

অথচ দেখুন।

কবরখানার শিলা

কীরকম ত্রস্ত কেঁপে ওঠে —

অতিবৃদ্ধ শ্যাওলার ওপরে

গােলাপ পাপড়ির ছোঁয়া পেলে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.