কী বললেন লতা মঙ্গেশকর রানু মণ্ডলের গান শুনে?

255

ইন্টারনেট ঘাঁটলেই দেখবেন একজনের নাম বার বার উঠে আসছে। তাঁর গান গাওয়ার ক্ষমতা দেখে হতবাক সকলেই। তিনি রানু মণ্ডল। রানাঘাট স্টেশনে গান গেয়ে কোনও রকমে উপার্জন করতেন। লতা মঙ্গেশকরের গাওয়া ‘শোর’ সিনেমার ‘এক প্যার কা নগমা হ্যায়‘ গেয়ে এখন রীতিমতো সিঙ্গিং সেনসেশন হয়ে উঠেছেন রানু। রানুর গাওয়া এই গানটি ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন রানাঘাটেরই বাসিন্দা অতীন্দ্র চক্রবর্তী। তারপরই পুরো ভাইরাল হয়ে যান এই ‘লতাকণ্ঠী’। স্টেজ শো-এর জন্য ডাক আসতে শুরু করে তাঁর।

‘সুপারস্টার সিঙ্গার’ বলে একটি রিয়্যালিটি শো-এ রানু আমন্ত্রণ পান। ওখানে গান গেয়ে মুগ্ধ করে দেন বিচারক হিমেশ রেশমিয়াকে। বাকিটা তো ইতিহাস! রানু ইতিমধ্যে সঙ্গীত পরিচালক হিমেশের সুর দেওয়া তিনটে গান গেয়ে ফেলেছেন। দুটির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছেন হিমেশ। রানুর গাওয়া গান ইতিমধ্যেই সুপারহিট হয়ে গেছে। অন্যান্য পরিচালক, সঙ্গীত পরিচালকরাও রানুর সঙ্গে কাজ করতে ইচ্ছুক। মাঝে শোনা যাচ্ছিল সলমান খান নাকি রানুকে মুম্বইতে ৫৫ লাখ টাকার ফ্ল্যাট উপহার দিয়েছেন। ‘দাবাং ৩’-তেও নাকি গান গাইবেন রানু। তবে রানু জানিয়েছেন এ স্রেফ গুজব। সলমান খানের সঙ্গে কোনওদিন দেখা হয়নি তাঁর। তবে রানু যে মন দিয়ে কাজ করতে চাইছেন তা পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে।

আর এবার তো যিনি রানুর অনুপ্রেরণা, স্বয়ং লতা মঙ্গেশকরও রানুকে অভিবাদন জানিয়েছেন। উনি বলেছেন, ‘আমার মতো গান গেয়ে কেউ যদি সফল হন, তা হলে তা আমার কাছে বিশাল বড় পাওনা। তবে আমি মনে করি নকল করে বেশিদিন সাফল্য ধরে রাখা যায় না। আমার, কিশোর দা, রফি সাব, আশার গান গেয়ে কিছুদিন চর্চায় থাকা যায়, কিন্তু নিজের পরিচিতি তৈরি করা যায় না। রিয়্যালিটি শো-য়ে দেখেছি অনেকেই আমার গান খুব সুন্দর করে গায়। কিন্তু বলতে পারেন, ক’জনকে আমরা মনে রাখি। আমি বলব একমাত্র শ্রেয়া (ঘোষাল) আর সুনিধি (চৌহান) সফল হয়েছেন। নকল করে তাই কোনও লাভ নেই। আশার (ভোঁষলে) কথাই ধরুন। ও নিজের স্টাইলে গান না গাইত, তা হলে সারা জীবন আমার ছায়া হয়ে থেকে যেত। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নিজের পরিচিতি গড়ে তুলতে হবে, তবেই সকলে আপনাকে মনে রাখবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.