সাম্যের গান (কবিতা)

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
pinkcity
ছবি সৌজন্য – pinkcity.com
ছবি সৌজন্য - pinkcity.com
ছবি সৌজন্য – pinkcity.com
ছবি সৌজন্য – pinkcity.com
ছবি সৌজন্য - pinkcity.com
ছবি সৌজন্য – pinkcity.com

সুদিন আসবে না জানি
তাও আনাজের ঝুড়ি নিয়ে
ওরা হেঁটে যায় বাইপাস ধরে
ঝাঁ চকচকে এই শহর আর তার
বৈভবের ঘরে বড় বেমানান ঠেকে
ছেঁড়া শাড়ি, ময়লা চটি
খুব সস্তা তেলের গন্ধে ম-ম,
গা বমি করা ঝুড়িওয়ালিটাকে
ঘাম লেগে যেতে ঘেন্না করেছি কত।
সুদিন আসবে না জানি,
এই ভাবেই ধনী এই শহরের ফুটপাথে
বসে ওরা ফেরি করে একবেলার
আধপেটা খিদেওলা সন্তানের দায়,
সুদিন আসবে না জানি.
রাতের সংগম আর মদ-খেকো সব
অন্য ঘর থেকে ফেরা পুরুষ মানুষেরা
ধুঁকতে ধুঁকতে চেয়ে নেবে
ভালোবাসা ছাড়া বেহায়া স্বামীর মার।
সুদিন আসবে না জানি,
আনাজওয়ালির ঝুলে যাওয়া শুকনো বুকে
দারিদ্র আর অবহেলার দুধ,
প্রাণ ভরে খুঁটে খায় কোলের শিশু
ব্যর্থক্ষয় অতীত মুছেছে যার
সুদিন আসবে না জানি।
তবু কবিতা আঁকি বৃষ্টির এই শহরে
ভালোবাসার কবিতা লিখতে বসে
আমার কেবল ফুটপাথ আর
ন্যাংটো শিশুদের হাত পাতা মনে পড়ে।

Tags

Leave a Reply