Tags Posts tagged with "Salman Khan"

Salman Khan

বলিউডের ভাইজানের এক কথায় কাজ হয়। তাঁর কথা অমান্য করবে এমন সাহস হয়তো কম লোকের আছে এই ইন্ডাস্ট্রিতে। অনেক অভিনেতা অভিনেত্রীকে বলিউডে যায়গা করে দেওয়ার পিছনেও সলমন খানের নাম রয়েছে। তবে এবার সেসব ছেড়ে ঝগড়া মেটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন অভিনেতা।

কপিল শর্মা এবং সুনীল গ্রোভারের ঝামেলার কথা কারওরই অজানা নয়। গুত্থি তথা মাশুর গুলাটির সঙ্গে কপিল শর্মার যেই জুটি একসময় হিট ছিল,তা এখন শত্রু জুটি হিসেবে খ্যাত ইন্ডাস্ট্রিতে। তবে এই শত্রুতার পর্ব এবার মিটিয়ে ফেলতে চান কপিল শর্মা শো-এর প্রযোজক সলমন খান। একদিকে সুনীল গ্রোভারের সঙ্গে ‘ভারত’ ছবিতে কাজ করছেন সুনীল,এবং অন্যদিকে কপিল শর্মা শো-এর প্রযোজনার দায়িত্বেও আছেন ভাইজান। দু’জনের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক তাঁর।  তাই সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে,’কপিল শর্মা শোতে সুনীল গ্রোভারকে ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করছেন ভাইজান। কপিল শর্মার সঙ্গে সবকিছু মিটিয়ে নেওয়ার জন্য কথা বলেছেন সুনীলের সঙ্গে। অন্যদিকে কপিলকেও একই কথা বুঝিয়েছেন বলেও জানা গিয়েছে। তবে ভাইজানের কথা শেষ অবধি রাখবেন কি না গুত্তি-কপিল সেটি দেখার অপেক্ষায় সকলে।

প্রসঙ্গত,সলমন খানের আসন্ন ছবি ‘ভারত’-এর প্রচারে আসার কথা রয়েছে কপিল শর্মা শোতে। সেখানে উপস্থিত থাকার জন্য ভাইজানের তরফ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে সুনীলকেও। আর সেখানেই নাকি একেবারে শোতে ফিরে আসার বিষয়টিও পরিষ্কার হয়ে যাবে বলেও খবর।

বলিউডে আপাতত অন্যতম জনপ্রিয় নায়িকা বললেই প্রথমে নাম আসে আলিয়া ভট্টের। পরিচালকের ঘরে জন্ম নিলেও নিজের এক আলাদাই পরিচয় বানিয়ে নিয়েছেন অভিনেত্রী। সব পরিচালকদের মুখে এখন শুধু তাঁরই নাম। আর পরিচালকদের সেই লম্বা লাইনে এবার যোগ দিলেন সঞ্জয়লীলা ভনসালিও।

সূত্রের খব অনুযায়ী,সঞ্জয়লীলা ভনসালির নতুন ছবিতে থাকতে পারেন আলিয়া ভট্ট। সলমন খান এবং শাহরুখ খানের সঙ্গে নায়িকা হিসেবে দেখা যেতে পারে আলিয়াকে। একদিকে যেমন এই ছবিটির মাধ্যমে শাহরুখ-সলমন জুটির রিইউনিয়ন হবে তেমনই প্রথমবার একসঙ্গে দুই খানকে দেখা যাবে পরিচালকের ছবিতে। আর বারতি পাওনা হিসেবে আলিয়া ভট্টের উপস্থিতিও পরিচালকের সঙ্গে প্রথম কাজ হয়ে উঠতে পারে। তবে জানা গিয়েছে এখনও অবধি ছবিটির জন্য হ্যাঁ করেননি। পরপর বেশ কয়েকটি ছবিতে ব্যস্ত থাকায় এখনও নিশ্চিতভাবে কিছুই ঠিক করেননি আলিয়া।

তবে কানাঘুষো শোনা গেলেও সলমন-শাহরুখের সঙ্গে একটি প্রেমের গল্প নিয়ে যে তিনি আসছেন তা নিশ্চিত। তবে তার আগে পরিচালকের ‘গাঙ্গুবাই’ নামক একটি ছবির কাজ শুরু হতে চলেছে খুব শিগগিরি। যাতে মূল চরিত্রে দেখা যাবে কাশীবাঈ তথা প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে। অন্যদিকে আলিয়া ভট্ট আপাতত ব্যস্ত তাঁর আসন্ন ছবি ‘কলঙ্ক’ এবং ‘তখত’ নিয়ে। এছাড়াও বাবা মহেশ ভট্টের ‘সসড়ক ২’ তেও কাজ করার কথা রয়েছে আলিয়ার।

বি-টাউনে এখনও মোস্ট ওয়ান্টেড ব্যচেলর বললেই যাঁর কথা সবার আগে মাথায় আসে তিনি আর কেউ নন,সলমন খান। আর একদিক নায়িকাদের মধ্যে এখনও সিঙ্গেল রয়ে গিয়েছেন ক্যাটরিনা কইফ। তাই সলমন ও ক্যাটরিনার অফস্ক্রিন জুটি ফিরে আসার জল্পনা এখন শীর্ষে। তা অবশ্য আরও পাকা করে দিচ্ছেন খোদ ভাইজান।

সম্প্রতি বলি সূত্রে জানা গিয়েছে,সঞ্জয়লীলা ভনসালির সঙ্গে ফের জোট বাঁধতে চলেছেন সলমন খান। আর সেখানেই বাধছে দ্বন্দ্ব। একদিকে যেমন নায়িকা হিসেবে পরিচালকের পছন্দ তাঁর মস্তানি ওরফে দীপিকা পাদুকোনকে,অন্যদিকে নিজের পাশে একমাত্র ক্যাটরিনাকে রাখতে চান ভাইজান। তাই সলমনের তরফ থেকে পরিচালককে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় যে তিনি ছবি করবেন যদি তাঁর নায়িকা হিসেবে ক্যাটকে রাখা হয় দীপিকার বদলে।

যদিও এর আগে বলিউডের কিং খান এবং সইফ আলি খান বাদে কোন খানের সঙ্গেই স্ক্রিন শেয়ার করেননি দীপিকা। অন্যদিকে ক্যাটরিনা বাদে একমাত্র অনুষ্কা শর্মার সঙ্গে সম্প্রতি জুটি বাঁধতে রাজি হয়েছিলেন সলমন। তবে আপাতত কোনকিছুই নিশ্চিত না হওয়ায় সিনেপ্রেমীরা সলমন-দীপিকার নতুন জুটিকে অনস্ক্রিন দেখতে পাবেন কী না,সেটাই দেখার অপেক্ষা।

আপাতত নিজস্ব প্রোডাকশনের ‘দাবাং থ্রি’র শুটিং নিয়ে ব্যস্ত সলমন। তার পর নাকি সঞ্জয়ের ছবির কাজ শুরু করবেন তিনি।

একসময় সলমন ও ঐশ্বর্য রাই ছিলেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা ভনসালির প্রিয় অভিনেতা অভিনেত্রী। যেখনে আজ স্থান পেয়েছেন রণবীর-দীপিকার জুটি। দেখতে দেখতে অবশ্য কেটে গিয়েছে প্রায় দুই দশক। সঞ্জয়ের সেই প্রেমের চরিত্র ধীরে ধীরে বদলেছে দাবাং হিরো হিসেবে। তবে সুখবর এটাই যে শেষ পর্যন্ত অ্যাকশন হিরোর তকমা কাটিয়ে আবার রোম্যান্টিক হিরো হিসেবে ফিরছেন সলমন খান।

অ্যাকশন হিরোর ইমেজ থেকে ভাইজানকে বের করে রোম্যান্টিক চরিত্রে তাঁকে দর্শকদের সামনে উপস্থিত করতে চাইছেন সঞ্জয়। বেশ কিছুদিন ধরেই একসঙ্গে কাজ করার ভাবনা চিন্তা করছিলেন তাঁরা। অবশেষে সফল হয় প্রচেষ্টা। সলমন খান ও সঞ্জয় লীলা ভনসালি ফিল্মস এর মিলিত প্রযোজনায় আসতে চলেছে এই প্রেমের কাহিনি। ইতিমধ্যেই চিত্রনাট্য নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে তোড়জোর। এমনকি ২০১৯ সালের দ্বিতীয় ভাগেই ছবির শ্যুটিং শুরু হওয়ার কথা চলছে। সেপ্টেম্বরে ‘দাবাং ৩’-এর শ্যুটিং শেষ হলেই এই ছবির কাজে হাত দেবেন তিনি। প্রধান নারী চরিত্রে কাকে দেখা যাবে তা অবশ্য এখনও স্থির হয়নি। তবে শোনা যাচ্ছে ২০২০ সালেই মুক্তি পেতে পারে এই ছবি।

প্রসঙ্গত, আপাতত ভাইজান ব্যস্ত তাঁর আসন্ন ছবি ‘ভারত’ নিয়ে। আলি আব্বাস জফরের এই পিরিয়ড ড্রামায় সলমনের সঙ্গে আবার দেখা যাবে ক্যাটরিনা কইফকে। পাশাপাশি  থাকছেন দিশা পাটানি, টাবু,সুনিল গ্রোভার সহ আরও অনেক তারকাই।

৯-এর দশক থেকে শুরু করে আজ অবধি বলিউড মাতিয়ে আসছেন তিন খান। শাহরুখ সলমন এবং আমির খান। এখনও অবধি বি-টাউনে তাঁরাই রয়েছেন এক নম্বরে। কেউ ভাই হয়ে,কেউ বাদশা হয়ে রাজ করে চলেছেন বলিউড। বক্স অফিসে এখনও শীর্ষে থাকে তাঁদের ছবি। বছরে একটা কিংবা দুটো ছবিতেই বুঝিয়ে দেন তাঁরা ছিলেন,আছেন এবং থাকবেন। এঁদের নাম দিয়েই যেমন চেনা যায় তাঁদের ছবিগুলি। অন্যদিকে কিছু ছবিই তাঁদের পৌঁছে দিয়েছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। বসিয়েছেন শ্রেষ্ঠত্বের গদিতে। তবে জানেন কি কিং খানের কিছু ব্লকবাস্টার ছবি একসময় করার কথা ছিল সলমন খানের। তবে শেষ মুহূর্তে সেই ছবিগুলি থেকে নিজেকে সরিয়ে ফেলেন ভাইজান।

১। বাজিগর

‘বাজিগর’ ছবিটি শাহরুখ খানের জীবনে মাইলস্টোন বলা যেতেই পারে। আর এমনই একটি ব্লকবাস্টার ছবিকে নাকি প্রথমে না করে দিয়েছিলেন সলমন খান। আব্বাস মস্তানের এই ছবিতে মূল নায়ককে দেখা গিয়েছে নেগেটিভ চরিত্রে। আর অনস্ক্রিন কোনভাবেই ভিলেনের চরিত্র করতে রাজি ছিলেন না ভাইজান। তাই শেষ মুহূর্তে ছবিটি করতে রাজি হয়ে যান কিং খান। আর সেই কারণেই হয়তো বলিউডের বাজিগর সলমন নয় শাহরুখ খান।

২। দিলওয়ালে দুলহনিয়া লে জায়েঙ্গে

মুম্বই-এর মারাঠা মন্দিরে আজও হাউসফুল ‘ডিডিএলজে’। ৯’এর দশকের সেই ছবিটি এখনও প্রতীক হয়ে রয়েছে বলিউডের। তবে জানেন কি হিন্দি সিনেমার এই অনবদ্য প্রেমকাহিনিকেও না করে দিয়েছিলেন ভাইজান। এমনকি যশরাজ ফিল্মসের তরফ থেকে যখন এই ছবিটি করার কথা ঠিক হয় তখন কোনভাবেই শাহরুখকে প্রথম পছন্দের তালিকায় রাখা হয়নি। তাই সলমন খানের না করে দেওয়ার পর ছবিটি নিয়ে যাওয়া হয় আমির খানের কাছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শাহরুখ রাজি হন ছবিটি করার জন্য। আর তারপর থেকেই বলিউডের রোম্যান্টিক হিরোর আখ্যা পেয়ে যান বাদশা।

৩। যোশ

ব্লকবাস্টার না হলেও যোশ ছবিতে দেবদাস পারোর জুটিকে ভাইবোন হিসেবে বেশ পছন্দ করেছিলেন দর্শক। তবে যখন এই ছবিটি সলমন খানের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়,তখন নিজের প্রেমিকার সঙ্গে ভাই হয়ে বড়পর্দায় আসতে না করে দেন তিনি। কার্যত ছবিটি নিয়ে যাওয়া হয় শাহরুখ খানের কাছে।

৪। কাল হো না হো

শাহরুখ খানের ছবি মানেই যে সিনেমাগুলির নাম মাথায় আসে সবার আগে তার মধ্যে অন্যতম হল ‘কাল হো না হো’। কিন্তু প্রথমে সেই ছবিতেও কাজ করার কথা ছিল ভাইজানের। তবে মূল চরিত্রে নয়। ছবির পরিচালক করণ জোহর প্রথম সৈফ আলি খানের চরিত্রের জন্য পছন্দ করেছিলেন সলমনকে। এমনকি প্রথমে রাজি থাকলেও পরে স্ক্রিন টাইমিং এবং চরিত্রটির গুরুত্ব মোটেই পছন্দ হয়নি ভাইজানের। কার্যত ছবিটি থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। পরবর্তীকালে সেই খামতি পূরণ করতে সৈফ আলি খানকে বেঁছে নেন পরিচালক।

৫। চক দে ইন্ডিয়া

না কোন রোম্যান্টিক ছবি নয়,শাহরুখের কেরিয়ারে রোম্যান্টিক ছবির পাশাপাশি যদি অন্য কোন শেষ্ঠ ছবি থেকে থাকে সেটি হল ‘চক দে ইন্ডিয়া’। তবে জানেন কি এই ছবিটিও প্রথম অফার করা হয় সলমনকে। তবে সেই সময় অন্য প্রোজেক্টে ব্যস্ত হয়ে পরায় সময়ের অভাবে ছবিটিকে হ্যাঁ বলতে পারেন না ভাইজান। পরে শাহরুখ খানকে অফার করা হয় কবির খানের সেই বিখ্যাত চরিত্রটি। আর সেই ছবিই এরপর হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে দাগ রেখে যায়।

লিখেছেন -
0 2034

ক্যাটরিনা কইফ ও সলমন খানের সম্পর্ক শুরু হয়েছিল ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিউ কিয়া’ ছবির মাধ্যমে। আর তারপর ‘এক থা টাইগার’-এর পর অনস্ক্রিন জুটি এক্কেবারে হিট বি-টাউনে। তবে অফস্ক্রিন সম্পর্কের মধ্যে চলে আসেন ঋষি পুত্র অর্থাৎ রণবীর কপূর। আর এই বিষয়টি মন থেকে কোনদিন যে তিনি মেনে নিতে পারেননি তা স্পষ্ট বোঝা গিয়েছিল সলমন খানের বোন অর্পিতা খানের বিয়ের সময়।

বিয়েতে নিমন্ত্রিত ছিলেন ক্যাটরিনা। এবং সেই সময় রণবীরের সঙ্গে জমিয়ে প্রেমও চালাচ্ছিলেন তিনি। তাই সুযোগ বুঝে রণবীর-ক্যাটের সম্পর্ক নিয়ে সকলের সামনে ক্যাটরিনাকে ট্রোল করে বসেন ভাইজান। এবং সেই ভিডিওটি ভাইরালও হয়ে যায় কিছুদিনের মধ্যে। যেখানে দেখা যাচ্ছে সলমন ক্যাটরিনাকে স্টেজে ডাকছেন তাঁর সঙ্গে নাচ করার জন্য। কিন্তু ক্যাটরিনা ‘কইফ’ বলে নয়, ক্যাটরিনা ‘কপূর’ বলে। এমনকি ক্যাটরিনা যে চাইলেই অনায়াসে ‘খান’ হতে পারতেন এবং এই সুযোগটি সে যে নিজের দোষেই হারিয়েছেন তাও বলতে শোনা যায় তাঁকে।

সম্প্রতি একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিতে এসেছিলেন ক্যাট। যেখানে ‘ভারত’-এর পোস্টারটি দেখে সলমনের সঙ্গে বিয়ে করে নেওয়ার কথা বলা হয় তাঁকে। তবে সেই উত্তরে শুধু ‘হুম’ বলে নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে দেখা যায় অভিনেত্রীকে।

চলতি বছরের ইদেই ক্যাটরিনার সঙ্গে জুটি বেঁধে আসছেন ভাইজান, সলমন খান । আর সেই প্রতীক্ষিত ‘ভারত’ ছবিটিরই চলছিল শেষ পর্যায়ের শুটিং। সব শেষে একটি গানের শুটিং বাকি ছিল । তবে হঠাৎ করেই সেই শুটিং বন্ধ করার নির্দেশ দিলেন সলমন খান। কিন্তু কেন?

সূত্রের খবর, ক্যাটরিনা কইফের সঙ্গে ‘প্যায়ার কিয়া তো ডরনা কেয়া’ ছবিটির  ‘ও ও জানে জানা’ গানটির রিমেক হওয়ার কথা ‘ভারত’ ছবিতে। আর সেই গানটিরই শুটিং বাকি ছিল। তবে ঘটনাচক্রে হঠাৎ করেই নায়িকা গোড়ালিতে চোট পাওয়ায় শুটিং-এ উপস্থিত থাকতে পারেন না। কার্যত সম্পূর্ণ শুটিং-ই বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ভাইজান। জানা যাচ্ছে ছবির একটি অ্যাকশন সিকোয়েন্সের শ্যুটিংয়ের সময় পায়ে চোট পান ক্যাট। ক্যাটরিনার পা একটু ঠিক হলেই ফের গানের অনুশীলন করবেন এবং শ্যুটিং শেষ করবেন বলে খবর।

প্রসঙ্গত, ‘ভারত’ ছবিটি দক্ষিণ কোরিয়ার ‘ওড টু মাই ফাদার’ অবলম্বনে তৈরি।

১৯৯৫ সালের মুক্তিপ্রাপ্ত ব্লকবাস্টার ‘করণ অর্জুন’ ছবিটি এখনও মাইলস্টোন বলিউডে। যদিও তাঁর পিছনে অনেক কারণই রয়েছে। সবথেকে বড় কারণ হল এই ছবিতে প্রথমবার দুই খান অর্থাৎ সলমন খান ও শাহরুখ খানকে বড়পর্দায় দেখা গিয়েছিল একসঙ্গে। আর সেই দুই চরিত্র দিয়েই এখনও মনে রাখা হয় সলমন-শাহরুখ জুটিকে। তবে জানেন কি এই ছবিতে করণ চরিত্রটির জন্য প্রথম পছন্দ ছিলেন না সলমন।

জানা যায়,রাকেশ রোশন পরিচালিত এই ছবিতে প্রথমে শাহরুখ খানের সঙ্গে তাঁর ভাইয়ের চরিত্রে কাজ করার কথা ছিল অজয় দেবগণের। এমনকি প্রথমে রাজিও হয়ে গিয়েছিলেন অজয়। তবে পরবর্তীকালে কিছু ব্যক্তিগত কারণেই ছবি থেকে বেরিয়ে আসেন অভিনেতা। এরপর অর্জুন চরিত্রটি অফার করা হয় ভাইজানকে।

প্রসঙ্গত,রাকেশ রোশন পরিচালিত ‘করণ অর্জুন’ ছবিটিতে যেমন একদিকে প্রথমবার একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন সলমন-শাহরুখ। তেমন অন্যদিকে প্রথম এই ছবিতে সহ পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন বলিউডের গ্রীক গড ওরফে হৃতিক রোশন। এমনকি ছবিটিতে যদি কাজ করতেন অজয় দেবগণ, তবে কাজলের সঙ্গেও এই ছবিটি তাঁর প্রথম ছবি হতে পারতো। যদিও সেই বছরই ‘গুন্ডারাজ’ ছবিতেই একসঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন অজয়-কাজল।

‘দিল দিয়া গল্লা’ হোক বা ‘রেস ৩’এর ‘সেলফিশ’ সলমনের এই রোম্যান্টিক গানগুলির পিছনে গলা ছিল আতিফ আসলমের। এমনকি ব্যক্তিগতভাবে পছন্দের কারণেই নিজের বেশ কয়েকটি ছবিতে অরিজিৎ সিং-এর বদলে আতিফকেই সুযোগ দিয়েছেন ভাইজান। তবে এবার সেই তারকাই মুখ ফেরালেন বিখ্যাত এই গায়কের দিক থেকে।

সলমন খান প্রোডাকশনের নতুন ছবি ‘নোটবুক’ থেকে সরানো হল পাকিস্তানি গায়ক আতিফ আসলামকে। খোদ সলমন খানের নির্দেশেই এমনটা করা হয়েছে বলে খবর। আতিফ আসলামকে সরিয়ে সেই ছবির গানগুলির নতুন করে রেকর্ডিং করারও নির্দেশ দিয়েছেন সলমন। তাই এরপর আর কোনদিনই আতিফের কন্ঠে রোম্যান্স করতে দেখা যাবে না ভাইজানকে।

প্রসঙ্গত,পুলওয়ামা-কাণ্ডের জেরে ‘অল ইন্ডিয়ান সিনে ওয়ার্কার্স অ্যাসোসিয়েশন’ পাকিস্তানি শিল্পীদের বলিউডে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। এমনকি, যে বা যাঁরা সংগঠনের নির্দেশ উপেক্ষা করে পাকিস্তানি শিল্পীদের সঙ্গে কাজ করবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণের হুঁশিয়ারিও দিয়েছে সংগঠন। আর সেই সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাতেই সলমন খান প্রোডাকশন আতিফ আসলামকে সরানোর সিদ্ধান্ত নিতে বাদ্ধ হয়েছেন বলে দাবি বলিউডের প্রযোজক সংগঠনের।

শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের লেখা ‘দেবদাস’ থেকে দীলিপ কুমার অভিনীত ‘দেবদাস’,আর তারপরই এই চরিত্রের কথা ভাবলে যাঁর কথা মাথায় আসে,তিনি হলেন বলিউডের কিং খান। কিন্তু তাঁকে এই রূপটি যিনি দিয়েছেন তিনি হলেন অন্যতম পরিচালক সঞ্জয়লীলা ভনসালি। এটি গেল বলিউডের এক ‘খান’-র গল্প। অপরদিকে আর এক খান অর্থাৎ সলমন খানকেও একইভাবে নিজের ছবিতে ‘প্রেম’ চরিত্রে বিখ্যাত করেছিলেন এই পরিচালক। ছবির নাম ‘হাম দিল দে চুকে সনম’। তবে এই দুই তারকা সঞ্জয় লীলা ভনসালির সঙ্গে কাজ করেছেন প্রায় যুগ পেড়িয়েছে। এরপর থেকে আর কোন ছবিতেই এই পরিচালক-অভিনেতা জুটিদের দেখা যায়নি অনস্ক্রিন।

তবে সম্প্রতি শোনা গিয়েছিল আবার সলমন ও  শাহরুখের সঙ্গে জুটি বাঁধতে চলেছেন এই পরিচালক। এমনও শোনা যায় এই দুই খানকে একসঙ্গে নিয়েই তাঁর পরবর্তী ছবি পরিকল্পনা করছেন সঞ্জয়। কিন্তু সূত্র মারফত জানা গিয়েছে,এই সবকটি খবরই ভুল এবং সম্পূর্ণ গুজব। যাঁরা এই দুই তারকাকে একসঙ্গে স্ক্রিনে দেখার জন্য অপেক্ষারত ছিলেন তাঁদের মন ভেঙে দেওয়ার মত খবর হলেও আপাতত এটাই সত্যি যে সলমন বা শাহরুখ, কোন অভিনেতার সঙ্গেই কাজ করতে ইচ্ছুক নন সঞ্জয়। তবে এর পিছনে আসল কারণ সম্পূর্ণভাবে জানা যায়নি এখনও।

শেষ সলমন ও শাহরুখ খানকে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল ‘হাম তুমহারে হ্যা সনম’ ছবিতে। তবে সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘জিরো’-এ বিশেষ অতিথি হিসেবে কিং খানের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন ভাইজান। প্রসঙ্গত,রাকেশ শর্মার বায়োপিক ‘সারে জাহাসে আচ্ছা’ ছবি থেকে বেরিয়ে এসে আপাতত ‘ডন’ ফ্রাঞ্চাইজির শেষ অধ্যায়ের শুটিং শুরু করতে চলেছেন কিং খান। এদিকে কিছুদিন আগেই ‘ভারত’ ছবির শুটিং শেষ করেছেন সলমন খান।

রেসিপি

error: Content is protected !!