কালো আর লাল চালের পায়েস

উৎসবের মরসুমে রইলো দু’টো সহজ কিন্তু একেবারেই অন্য রকমের পায়েসের রেসিপি যা মণিপুর আর উত্তরাখন্ড থেকে আপনাদের জন্য নিয়ে আসা হল|

১) কালো চালের পায়েস : মণিপুরে যে কোনও অনুষ্ঠানে এই কালো চালের পায়েস হবেই হবে| পরের বার আপনার বাড়িতে অতিথি এলে চিরাচরিত বাঙালি পদের বদলে চক হাউ আমুবি ( মণিপুরে কালো চালের পায়েস এই নামে পরিচিত) বানিয়ে খাওয়ান|

পায়েস বানাতে লাগবে :

১৫০ গ্রাম মণিপুরী কালো চাল
২ কাপ দুধ
৬ টেবিলচামচ কোকোনাট সুগার
১ টেবিলচামচ এলাচ গুঁড়ো
এক মুঠো ড্রাই ফ্রুট আর বাদাম

পদ্ধতি :
# সারারাত চাল জলে ভিজিয়ে রাখুন| পায়েস তৈরি করার আগে চাল জল থেকে ছেঁকে তুলে নিন|
# একটা বড় পাত্র দুধ ফুটিয়ে নিন| দুধ ফুটতে আরম্ভ হলে আঁচ কমিয়ে দিন| এইবার এতে চাল দিয়ে হালকা আঁচে দুধ ফোটাতে থাকুন|
# মাঝে মাঝেই দুধটা নেড়ে নিন| ফুটতে ফুটতে পরিমাণে আধা হয়ে গেলে বুঝবেন পায়েস তৈরি হয়ে গেছে| তবে দেখে নিন চাল সেদ্ধ হয়েছে কী না| তবে সাবধান চাল যেন গলে না যায়|
# গ্যাস বন্ধ করে দিন|
# এতে এ বার কোকোনাট সুগার আর এলাচের গুঁড়ো মেশান| ভাল করে নেড়ে নিন|
# পরিবেশন করার আগে ড্রাই ফ্রুট মিশিয়ে দিন| এই পায়েস গরম বা ঠান্ডা দু’ভাবেই খাওয়া যায়|ব্ল্যাক রাইস বা কালো চাল অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন|

২) গাড়বালি রেড রাইস : এই চাল দেখতে ও খেতে বাসমতি চালের মতই শুধু রংটা লাল| উত্তরাখন্ডের স্থানীয় মানুষদের মধ্যে এই চাল খুব জনপ্রিয়| ব্ল্যাক রাইসের মতই এই চালও অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন|

লাল চাল দিয়ে পায়েস :

এর জন্য লাগবে :
১০০ গ্রাম হিমালয়ান রেড রাইস
৫০০ মিলিলিটার জল
৩০ গ্রাম শুকনো নারকেল
৩০ গ্রাম গুড়
১০ মিলিলিটার ঘি

পদ্ধতি :

# একটা মুখ ঢাকা সসপ্যানে জল গরম করুন| জল ফুটলে তাতে চাল আর অল্প একটু নুন দিন|
# চাল সহ জল ফুটতে আরম্ভ হলে আঁচ কমিয়ে ঢাকা দিয়ে দিন|
# চাল আধ সেদ্ধ হলে এতে গুড় মিশিয়ে দিন|
# জল শুকিয়ে এলে দেখে নিন চাল সেদ্ধ হয়েছে কী না| গ্যাস বন্ধ করে দিন|
# গ্যাস থেকে নামিয়ে পায়েস ঠান্ডা করে নিন| রুম টেম্পারেচারে এলে এতে শুকনো নারকেল ভাল করে মিশিয়ে দিন| একেবারে ঠান্দা হয়ে গেলে এতে ঘি মিশিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন|

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

pakhi

ওরে বিহঙ্গ

বাঙালির কাছে পাখি মানে টুনটুনি, শ্রীকাক্কেশ্বর কুচ্‌কুচে, বড়িয়া ‘পখ্শি’ জটায়ু। এরা বাঙালির আইকন। নিছক পাখি নয়। অবশ্য আরও কেউ কেউ