কালো আর লাল চালের পায়েস

236

উৎসবের মরসুমে রইলো দু’টো সহজ কিন্তু একেবারেই অন্য রকমের পায়েসের রেসিপি যা মণিপুর আর উত্তরাখন্ড থেকে আপনাদের জন্য নিয়ে আসা হল|

১) কালো চালের পায়েস : মণিপুরে যে কোনও অনুষ্ঠানে এই কালো চালের পায়েস হবেই হবে| পরের বার আপনার বাড়িতে অতিথি এলে চিরাচরিত বাঙালি পদের বদলে চক হাউ আমুবি ( মণিপুরে কালো চালের পায়েস এই নামে পরিচিত) বানিয়ে খাওয়ান|

পায়েস বানাতে লাগবে :

১৫০ গ্রাম মণিপুরী কালো চাল
২ কাপ দুধ
৬ টেবিলচামচ কোকোনাট সুগার
১ টেবিলচামচ এলাচ গুঁড়ো
এক মুঠো ড্রাই ফ্রুট আর বাদাম

পদ্ধতি :
# সারারাত চাল জলে ভিজিয়ে রাখুন| পায়েস তৈরি করার আগে চাল জল থেকে ছেঁকে তুলে নিন|
# একটা বড় পাত্র দুধ ফুটিয়ে নিন| দুধ ফুটতে আরম্ভ হলে আঁচ কমিয়ে দিন| এইবার এতে চাল দিয়ে হালকা আঁচে দুধ ফোটাতে থাকুন|
# মাঝে মাঝেই দুধটা নেড়ে নিন| ফুটতে ফুটতে পরিমাণে আধা হয়ে গেলে বুঝবেন পায়েস তৈরি হয়ে গেছে| তবে দেখে নিন চাল সেদ্ধ হয়েছে কী না| তবে সাবধান চাল যেন গলে না যায়|
# গ্যাস বন্ধ করে দিন|
# এতে এ বার কোকোনাট সুগার আর এলাচের গুঁড়ো মেশান| ভাল করে নেড়ে নিন|
# পরিবেশন করার আগে ড্রাই ফ্রুট মিশিয়ে দিন| এই পায়েস গরম বা ঠান্ডা দু’ভাবেই খাওয়া যায়|ব্ল্যাক রাইস বা কালো চাল অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন|

২) গাড়বালি রেড রাইস : এই চাল দেখতে ও খেতে বাসমতি চালের মতই শুধু রংটা লাল| উত্তরাখন্ডের স্থানীয় মানুষদের মধ্যে এই চাল খুব জনপ্রিয়| ব্ল্যাক রাইসের মতই এই চালও অনলাইনে সহজেই পেয়ে যাবেন|

লাল চাল দিয়ে পায়েস :

এর জন্য লাগবে :
১০০ গ্রাম হিমালয়ান রেড রাইস
৫০০ মিলিলিটার জল
৩০ গ্রাম শুকনো নারকেল
৩০ গ্রাম গুড়
১০ মিলিলিটার ঘি

পদ্ধতি :

# একটা মুখ ঢাকা সসপ্যানে জল গরম করুন| জল ফুটলে তাতে চাল আর অল্প একটু নুন দিন|
# চাল সহ জল ফুটতে আরম্ভ হলে আঁচ কমিয়ে ঢাকা দিয়ে দিন|
# চাল আধ সেদ্ধ হলে এতে গুড় মিশিয়ে দিন|
# জল শুকিয়ে এলে দেখে নিন চাল সেদ্ধ হয়েছে কী না| গ্যাস বন্ধ করে দিন|
# গ্যাস থেকে নামিয়ে পায়েস ঠান্ডা করে নিন| রুম টেম্পারেচারে এলে এতে শুকনো নারকেল ভাল করে মিশিয়ে দিন| একেবারে ঠান্দা হয়ে গেলে এতে ঘি মিশিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন|

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.