পুজোর আগে চুলের যত্ন

পুজোর আগে চুলের যত্ন

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

পুজো তো প্রায় এসেই গেল, হাতে তো আর বেশি দিন বাকি নেই? যাঁরা ঘরে থাকেন তাঁরা তো ইতিমধ্যেই তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন| রেগুলার ফেসিয়াল, ইত্যাদি বিভিন্ন ঘরোয়া পদ্ধতির সাহায্যে পিকচার পারফেক্ট হয়ে উঠছেন ওই বিশেষ পাঁচ দিনের জন্য| কিন্তু যাঁরা অফিসে যান, ভাবছেন তো এত ব্যস্ততার মধ্যে কী করে ওই পাঁচদিনে সবার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবেন? অনেকেই হয়তো পুজোর দু’দিন আগে পার্লারে গিয়ে মাথার চুল থেকে পায়ের নখ অবধি ট্রিটমেন্ট করিয়ে নেবেন| কিন্তু অবশ্যই একটা কথা মনে রাখতে হবে‚ যদি ভাবেন একদিন পার্লারে গিয়ে বাজিমাত করে দেবেন সেটা কিন্তু ভুল ধারণা| সব থেকে ভাল হয় যদি এখন থেকেই অল্প অল্প করে শুরু করে দেন রূপচর্চা। পুজোর আগে চুলের যত্ন কী ভাবে নেবেন আজকে তাই নিয়ে রইলো কয়েকটা টিপস।

পরিবেশে দূষণের মাত্রা অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ার ফলে চুলের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয় | তাই সব থেকে প্রথমে দরকার চুল পরিষ্কার রাখা| কিন্তু একই সঙ্গে মাথায় রাখতে হবে রোজ চুলে শ্যাম্পু করলে চুল রুক্ষ হয়ে যেতে পারে এবং চুল পড়ার সমস্যাও বাড়তে পারে| তাই এক দিন অন্তর কোনও মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন| শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই কন্ডিশনার লাগান| চুলকে মজবুত ও রেশমি কোমল করে তুলতে সপ্তাহে এক দিন ডিপ কন্ডিশনিং ট্রিটমেন্ট করান|

এ ছাড়াও সপ্তাহে এক দিন ঘরে তৈরি হেয়ার প্যাক ট্রাই করুন| হেয়ারপ্যাকের জন্য লাগবে এক মুঠো মেথি এবং অলিভ অয়েল| রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এক মুঠো মেথি জলে ভিজিয়ে রাখুন| সকালে তা ভাল করে বেঁটে তাতে দু’চামচ অলিভ অয়েল ভাল মিশিয়ে চুলের গোড়ায় ও চুলে লাগিয়ে নিন| আধ ঘন্টা রেখে মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুনা|

জবা ফুল ও অ্যালোভেরার হেয়ার প্যাক ও ব্যাবহার করতে পারেন| কয়েকটা লাল জবা ফুল ও কয়েক চামচ অ্যালোভেরা রস ব্লেন্ডারে ভালো করে ব্লেন্ড করে চুলে ও চুলের গোড়ায় লাগিয়ে নিন| শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন|

অনেকেই খুসকির সমস্যায় জেরবার হন| তারা অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু ব্যাবহার করুন | একই সঙ্গে নিয়মিত সম পরিমাণে অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার ও জল মিশিয়ে মাথায় লাগান| এ ছাড়াও খুসকি দূর করতে রোজমেরি এসেনসিয়াল অয়েলের জুড়ি মেলা ভার| নারকেল তেলের সঙ্গে ১০ ফোঁটা রোজমেরি অয়েল মিশিয়ে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে চুলের গোড়ায় লাগান| সকালে শ্যাম্পু করে নিন| এ ছাড়াও আদা ছেঁচে তার রস যদি নিয়মিত মাথায় লাগাতে পারেন তাহলে খুসকির সমস্যা দূর হবে|

অনেকেই পুজোর আগে চুলে রং করাবেন| কিন্তু জানেন কি‚ চুলে রং করার পর খুব চড়া রোদে যাওয়া উচিত নয়? চুলে রং করালে অবশ্যই কালার প্রোটেক্ট শ্যাম্পু ব্যবহার করুন| অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় চুলে রং করালে চুল রুক্ষ ও নির্জীব হয়ে যায় তারা নিয়মিত মাথায় তেল মাখার চেষ্টা করুন| কী ভাবে মাখবেন? নারকেল তেল‚ ক্যাস্টর অয়েল ও অলিভ অয়েলের মিশ্রণ তৈরি করুন| রতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই মিশ্রণ হাল্কা গরম করে নিন| এই উষ্ণ তেল মালিশ করুন চুলের স্কাল্পে| সকালে উঠে শ্যাম্পু করে ফেলুন|

একই সঙ্গে মনে রাখবেন ভিজে চুল কখনওই আঁচড়াবেন না‚ চুলের জট ছাড়ানোর জন্য বড় দাঁড়ার চিরুনি ব্যবহার করুন| কাঠের চিরুনি ব্যবহার করতে পারলে সব থেকে ভাল হয় |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

sharbat lalmohon babu

ও শরবতে ভিষ নাই!

তবে হ্যাঁ, শরবতকে জাতে তুলে দিয়েছিলেন মগনলাল মেঘরাজ আর জটায়ু। অমন ঘনঘটাময় শরবতের সিন না থাকলে ফেলুদা খানিক ম্যাড়মেড়ে হয়ে যেত। শরবতও যে একটা দুর্দান্ত চরিত্র হয়ে উঠেছে এই সিনটিতে, তা বোধগম্য হয় একটু বড় বয়সে। শরবতের প্রতি লালমোহন বাবুর অবিশ্বাস, তাঁর ভয়, তাঁর আতঙ্ক আমাদেরও শঙ্কিত করে তোলে নির্দিষ্ট গ্লাসের শরবতের প্রতি।…