‘পুজো মানে আমার কাছে শুধুই শাড়ি’

158

পুজোয় কলকাতাতেই থাকতে ভালবাসেন আর ভালবাসেন হইহই করে আড্ডা দিতে। নিজের পুজোর লুকবুক আর কালেকশন নিয়ে কথা বললেন ডিজাইনার রিমি নায়েক।

দুর্গা পুজোয় কলকাতায় থাকেন না বাইরে বেড়াতে যান?

থাকার চেষ্টা করি, তবে সব সময় হয় না। এবার অবশ্য আমি কলকাতাতেই থাকব। আগে থেকেই প্ল্যান করে নিয়েছিলাম। আর এ বার তো মজা আরও বেশি। কারণ আমাদের সমস্ত আত্মীয়স্বজন যে যেখানে থাকেন, সবাই পুজোর সময় কলকাতায় আসছেন। ফলে আড্ডার বিশাল আসর বসবে।

দুর্গা পুজো কীভাবে উপভোগ করতে ভালবাসেন?

পুজো মানে আমার কাছে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা। ঘুরে বেড়াব, খাব-দাব, কোনও নিয়ম, কোনও রেসট্রিকশন মানব না। আর অবশ্য প্রতি দিন সুন্দর করে সাজবগুজব।

সাজগোজের কথা যখন বললেন, তখন জানতে চাইব আপনি পুজোর সময় কেমন ধরনের পোশাক পরতে পছন্দ করেন?

শাড়ি। শাড়ি ছাড়া পুজোর সময় আর কোনও পোশাকের কথা আমি ভাবতেই পারি না।

নিজের ব্র্যান্ডের শাড়ি পরেন নিশ্চয়?

বরং উল্টোটা। পুজোর সময় আমি খুব একটা নিজের লেবেলের পোশাক পরি না। ভীষণ ট্র্যাডিশনাল সাজতে ইচ্ছে করে। আর সব শাড়ি মা-র থেকে নিই। মা-র আলমারিতে প্রচুর দারুণ দারুণ শাড়ি আছে। সে সব ফেলে অন্য কিছু পরার কথা মোটে ভাবি না।

এবার পুজোয় তা হলে কি ট্র্যাডিশনাল পোশেকের কালেকশন বানিয়েছেন?

না ঠিক তেমন নয়, তবে ভীষণ অন্যরকম একটা মোটিফ নিয়ে কাজ করলাম এ বার। জিঙ্গকো গাছের কথা শুনেছেন? চায়নায় খুব হয়। সেই গাছের পাতাকে মোটিফ হিসেবে নিয়ে কালেকশন তৈরি করেছি। প্রিন্ট আছে, এমব্রয়ডারি আছে।

কোন ধরনের পোশাক দেখতে পাব এই কালেকশনে?

অনেক ধরনের পোশাক আছে এই কালেকশনে। ক্রপ টপ, ড্রেপড ড্রেস, ড্রেপড স্কার্ট, ড্রেপড প্যান্ট। স্যাটিন আর সিল্ক ক্রেপ ফ্যাব্রিক ব্যবহার করেছি।

শাড়ি তৈরি করেননি?

হ্যাঁ করেছি তো। আর এবার আমি অন্যরকম ড্রেপিংয়ের উপর জোর দিয়েছি। আসলে এখন শাড়ি অনেক রকম ভাবে পরা যায়। কনটেম্পোরারি ভাবে স্টাইল করলে শাড়ি এখন সবাই পরতে পারেন। বিশেষ করে অল্পবয়স্করা এভাবেই শাড়ি পরতে পছন্দ করেন। ফলে আমি শাড়ির সঙ্গে এবারে ক্রপ টপ, প্রিন্টেড প্যান্ট টিম আপ করেছি।

পুজোয় কেমন পোশাক পরতে বলবেন সকলকে?  বিশেষ করে ধরুন অষ্টমীর সন্ধেবেলার লুক যদি একটু বর্ণনা করেন…

ও বাবা! বেশ কঠিন ব্যপার। তবে আমি বলব অষ্টমীর দিন, লুক শুড বি গোল্ড। সাদা আর সোনালি রঙের পোশাকে লাল বা গোলাপির ছোঁয়া থাকলে ভাল লাগবে। আর শুধু শাড়ি নয়, আমি তো বলব,ক্রপ টপ, শার্ট, জ্যাকেট সবই পরা যেতে পারে। একটু ট্র্যাডিশনাল, একটু কনটেম্পোরারি।

কোন তারকা এই পুজোয় আপনার পোশাক পরলে খুশি হবেন?

একটু ভাবতে হবে। উমম… কাজলকে আমার খুব ভাল লাগে। উনি আমার লেবেলের পোশাক পরলে খুশি হব।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.