সেক্রেড গেমস’-এর পরে সেফের বন্ধু হলেন অনুপ্রিয়া

সেক্রেড গেমস’-এর পরে সেফের বন্ধু হলেন অনুপ্রিয়া

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

তাঁকে সবাই চেনেন ‘পদ্মাবত’-এ শাহিদ কপূরের প্রথম স্ত্রীয়ের ভূমিকায় অভিনয় করা নায়িকা হিসেবে। নাম অনুপ্রিয়া গোয়েঙ্কা। নেটফ্লিক্স সিরিজ ‘সেক্রেড গেমস’-এর দ্বিতীয় সিজনে তাঁকে ফের আবিষ্কার করবেন দর্শক। সেফ আলি খান অভিনীত চরিত্র সরতাজ সিংহের প্রাক্তন স্ত্রী হিসেবে। এ ছাড়াও বিভিন্ন অনলাইন সিরিজে কাজ করেছেন অনুপ্রিয়া। সেফের বিপরীতে অভিনয় করার অভিজ্ঞতা নিয়ে তিনি বলেছেন, “সেফ দারুণ মানুষ! ওঁর সঙ্গে অনেকক্ষণ আড্ডা দেওয়া যায়। অনেক পড়াশোনা ওঁর। তার উপরে ব্যক্তিত্বশালী একজন মানুষ। সহ-অভিনেতাকে এক্সপেরিমেন্ট করার অনেকটা জায়গা দেন সেফ। আবার নিজেও অসাধারণ অভিনয় করেন। আমরা শটের পরে অনেকক্ষণ গল্প করতাম। কখনও এটা মনে করাতেন না যে, উনি একজন বড় তারকা আর আমি নবাগত।”

‘সেক্রেড গেমস’-এর প্রথম ভাগেই বোঝা গিয়েছিল, নিজের ব্যক্তিগত জীবনে সরতাজ সিংহ বেশ বিভ্রান্ত। এবং তার কারণ হিসেবে বিবাহবিচ্ছেদ একটি বিরাট ভূমিকাও নিয়েছে। কিন্তু প্রযোজক ও পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ এবং বিক্রমাদিত্য মোতওয়ানে সরতাজের ব্যক্তিগত জীবনের উপরে খুব একটা ফোকাস রাখেননি গত বার। অনুপ্রিয়া জানিয়েছেন, সেই কাজটাই এ বার করেছেন নির্মাতারা। তাঁর কথায়, “গত বার আমার চরিত্রটিকে (মেঘা) নেহাত দর্শকের সঙ্গে পরিচয়টুকু করানো হয়েছিল। কিন্তু কী কারণে ওদের সম্পর্ক ভাঙল, কেন সরতাজ এতটা ভেঙে পড়েছিল, এই বিষয়গুলো এই সিজনে দেখানো হবে। এ বার সরতাজ যে পদক্ষেপগুলো করবে তার উপরে মেঘারও হাত আছে। সেই জায়গাগুলো আবিষ্কার করতে দর্শকের ভালই লাগবে আশা করছি।”

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।