নিশ্ছিদ্র ঘুমের মুশকিল আসান টিপস্

আধুনিক শহুরে জীবনে যথেষ্ট ঘুমের অভাব অনেকের কাছেই বড় সমস্যা হয়ে উঠেছে। কাজের চাপ এবং শরীরচর্চার অভাব এবং ডিজিটাল মিডিয়ার আসক্তিও একটা বড় সংখ্যক মানুষের ঘুমের ওপর প্রভাব ফেলেছে। অথচ ঠিকঠাক ঘুম না হলে হজমের গোলমাল, চোখের তলায় কালি পড়ার মতো সমস্যা দেখা দেবে। কমে যাবে কর্মক্ষমতা। তবে এই  সমস্যা গভীর হলেও, এর সমাধানের উপায়ও কিন্তু রয়েছে হাতের নাগালের মধ্যেই।

চট করে জেনে নিন কোন সাতটি খাঁটি ভারতীয় পানীয় আপানাকে দিতে পারে নিশ্ছিদ্র নির্ভার ঘুম।

১. ক্যামোমোইল চা – ক্যামেোমাইল ফুলের নির্যাস থেকে তৈরি চা নাকি সহজে ঘুম আসতে সাহায্য করে। রাতে খাওয়ার পরে এক কাপ ক্যামোমাইল চা খান। ঘুম নিয়ে আর দুশ্চিন্তা করতে হবে না।

২. ইষোদুষ্ণ দুধ খান – দুধে রয়েছে ট্রিপটোফান যা দেহের সেরোটোনিন বাড়িয়ে দেয় এবং ঘুম আসতে সাহায্য করে। এক কাপ দুধ সামান্য গরম করে খেলে ঘুম আসবে তাড়াতাড়ি।

৩. অশ্বগন্ধা চা – অশ্বগন্ধা চায়ে রয়েছে ট্রাইথাইলিন গ্লাইকল, বিশেষজ্ঞদের মতে, যা ঘুম আসার পক্ষে প্রচন্ড উপকারি।

৪. হলুদ দুধ – দুধ, হলুদ, দারচিনি, ছোট এলাচ এবং মধুর এই মিশ্রণ ঘুম আসার অব্যর্থ  ওষুধ। খুব সহজেই রান্নাঘরের কিছু উপকরণ দিয়েই তৈরি করে ফেলা যায় এই জাদু পানীয়।

৫. পাকা কলার স্মুদি – পাকা কলা আর সামান্য দুধ ব্লেন্ডারে মিশিয়ে বানিয়ে ফেলুন স্মুদি। এই স্বাস্হ্যকর পানীয় আপনার দেহকে ঘুমের জন্য তৈরি করবে।

৬. ক্যাফেন বিহীন গ্রিন টি – ক্যাফেন ঘুমের শত্রু হিসেবে পরিচিত। তাই ঘুম আসার জন্য পান করুন গ্রিন টি। এতে থাকা থিএনাইন অ্যামাইনো অ্যাসিড ঘুমের জন্য উপকীরি।

৭. লেবু আর পুদিনার পানীয় – পাতিলেবুর খোসা আর পুদিনা পাতা ফুটিয়ে তৈরি করে ফেলুন এই সুগন্ধী পানীয়। এতে আপনার স্ট্রেস দূর হবে আর ঘুমও আসবে সহজে।

এই পানীয়গুলো সেবন করলে তো ঘুম আসবেই তবে সেইসঙ্গে লিয়মিত শরীরচর্চা করাও জরুরি। তাতে আপনার রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকবে, কমবে স্নায়ুর চাপ আর শরীরের নিয়ম মেনেই আসবে ঘুমও।

সূত্র: হেলথশটস্

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

afgan snow

সুরভিত স্নো-হোয়াইট

সব কালের জন্য তো সব জিনিস নয়। সাদা-কালোয় উত্তম-সুচিত্রা বা রাজ কপূর-নার্গিসকে দেখলে যেমন হৃদয় চলকে ওঠে, এ কালে রণবীর-দীপিকাকে দেখলেও ঠিক যেমন তেমনটা হয় না। তাই স্নো বরং তোলা থাক সে কালের আধো-স্বপ্ন, আধো-বাস্তব বেণী দোলানো সাদা-কালো সুচিত্রা সেনেদের জন্য।স্নো-মাখা প্রেমিকার গাল নিশ্চয়ই অনের বেশি স্নিগ্ধ ছিল, এ কালের বিবি-সিসি ক্রিম মাখা প্রেমিকাদের গালের চেয়ে।