ছোটবেলাতে দারিদ্রের মুখোমুখি হতে হয়েছিল টাইগার শ্রফকে

945

‘হিরোপন্থি’ ছবি দিয়ে অভিনয়ের হাতেখড়ি| তার পর অনেকটা পথ পেরিয়ে এসেছেন টাইগার শ্রফ| বি-টাউনে অ্যাকশন হিরো বলতে প্রথমেই মনে আসে টাইগারের নাম| কিন্তু অনেকেই জানে না এই জনপ্রিয় ‘স্টুডেন্ট’-এর ছোটবেলাটা কিন্তু কেটেছে বেশ দারিদ্রের মধ্যে| অনেকেই এটা শুনে অবাক হবেন কারণ টাইগারের বাবা হলেন জ্যাকি শ্রফ|

২০০৩ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘বুম’ ছবি| এই ছবির প্রযোজনা করেছিলেন টাইগারের মা আয়েশা শ্রফ| ছবির মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন অমিতাভ বচ্চন| সবাই আন্দাজ করেছিল ছবিটা সুপার হিট হবে| তার বদলে ‘বুম’ বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে| এর পরেই শ্রফ পরিবারের জীবনযাপনে বিপুল পরিবর্তন ঘটে| টাইগারের তখন এগারো বছর বয়স|

সম্প্রতি একটা সাক্ষাৎকারে টাইগার এই বিষয়ে কথা বলেছেন | ওঁর কথায় ‘তখন আমার এগারো বছর বয়স| ‘বুম’ মুক্তি পাওয়ার আগেই লিক হয়ে যায়| ফলে ছবিটা সুপার ফ্লপ হয়| সেই সময় আমাদের বেশ কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছিল| অর্থনৈতিক সমস্যা দেখা দিয়েছিল| আমার মনে আছে একে একে ঘরের সব আসবাবপত্র বিক্রি হয়ে গেল| যে সব জিনিসপত্র ব্যবহার করতাম সব চলে গেল| শেষ অবধি আমার শোয়ার খাটটা বাকি ছিল| সেটাও এক দিন বিক্রি হয়ে গেল| সেই সময় দীর্ঘ দিন আমি মাটিতে শুয়ে ঘুমিয়েছি|’

টাইগার শ্রফকে শেষ দেখা গেছিল ‘স্টুডেন্ট অব দ্যা ইয়ার ২’ ছবিতে| এর পর ওঁকে দেখা যাবে শ্রদ্ধা কপূরের বিপরীতে ‘বাগি ৩’ ছবিতে| এ ছাড়াও টাইগারকে দেখা যাবে হৃতিক রোশনের সঙ্গে ‘ওয়ার’ ছবিতে| চলতি বছরের ৩ অক্টোবর এই ছবির মুক্তি পাওয়ার কথা|

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.